আব্দুস সালাম,টেকনাফ:
কক্সবাজারের টেকনাফের প্রধান সড়ক ডাম্পার (মিনি ট্রাক) ও অটোরিক্সা (সিএনজি) এর সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষে মা ফাতেমা বেগম (২৩) ও তিন বছরের ছেলে মো. আসোয়াদ নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আরও ২ জন আহত হয়েছেন। আহতরা বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

শুক্রবার (২৩ সেপ্টম্বর) দুপুর ১ টার দিকে হোয়াইক্যং ইউনিয়নের লম্বাবিল সাকিনের বাইতুল মামুর জামে মজজিদের সামনে মহা সড়কে এ দূর্ঘটনা ঘটে।
প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, টেকনাফগামী একটি নাম্বার ও ফিটনেস বিহীন পুরাতন ডাম্পার (মিনি ট্রাক) বিপরীতমুখী আসা সিএনজির মুখোমুখি সংঘর্ষে দুমড়ে মুচড়ে যায় অটোরিক্সা (সিএনজি)। এ সংঘর্ষে ঘটনাস্থলে তিন বছরের ওই শিশু নিহত হন। পরে অপরাপর আহতদের উদ্ধার করে বেসরকারি পরিচালিত এমএসএফ হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ফাতেমা বেগম নামক এক গৃহবধু মৃত্যুবরণ করেন। সে টেকনাফ পৌরসভার আবুল কালামের স্ত্রী। তাদের সন্তান মো. আসোয়াদ।
স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শী ও মো ইসমাইল আরমান সহ অনেকে জানান, ডাম্পার গাড়িটি ফিটনেস বিহীন অদক্ষ চালক দ্বারা চালাচ্ছিলেন ফোনে কথা বলার কারণে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।
সেই সাথে সড়কটি ছিল সরু ও কাঁদা মাটি দ্বারা পিচ্ছিল হওয়ায় এ দূর্ঘটনা ঘটে বলেও জানান অনেকে।

হোয়াইক্যং হাইওয়ে পুলিশের পরিদর্শক মনিরুল ইসলাম ভুঁইয়া মৃত্যুর বিষয়ে নিশ্চিত করে বলেন, খবর পেয়ে হাইওয়ে পুলিশের একটি টিম নিয়ে ঘটনাস্থলে যাওয়া হয়। সেখানে হতাহতদের উদ্ধার করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। পাশাপাশি অটোরিক্সা (সিএনজি) ও মিনি ট্রাকটি জব্দ করা হয়েছে।