এম.এ আজিজ রাসেল :
চিরকুট লিখে বিষপানে মৃত্যু বরণ করেছেন চকরিয়া সাব-রেজিস্ট্রার অফিসের কর্মকর্তা দুর্জয় কান্তি পাল। মৃত্যুর আগে তিনি এক ভিডিও বার্তায় বলে গেলেন তাঁর মৃত্যুর পেছনে কারা জড়িত রয়েছে। এ নিয়ে সর্বত্র তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে। শুক্রবার বিকাল ৫টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

জানা যায়, বিজিবি ক্যাম্প এলাকার দুর্জয় কান্তি পাল চকরিয়া সাব-রেজিস্ট্রার অফিসে কর্মরত ছিলেন। অফিসে প্রায় তাঁকে নানা বিষয় নিয়ে টর্চার করতেন অফিস সহকর্মী নিবাস কান্তি পাল, মোহরার লিটন কান্তি পাল ও পিয়ন নাছির উদ্দিন। তাঁদের টর্চার সহ্য করতে না পেরে গত মঙ্গলবার রাত ১২টার দিকে খুরুশকুল আদর্শ গ্রামে গিয়ে বিষপান করেন তিনি। সেখান থেকে তাঁকে মুমূর্ষু অবস্থায় উদ্ধার করে রাত ২টার দিকে সদর হাসপাতালে আনা হয়। হাসপাতালে ২ দিন মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়েন। পরে শুক্রবার বিকাল ৫টার দিকে তিনি মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন তিনি।

দুর্জয়ের স্ত্রী শিল্পী মল্লিক বলেন, তিনি কখনো আত্মহত্যা করতে পারেন না। তাঁকে প্রতিদিন অফিসে কয়েকজন সহকর্মী মানসিক নির্যাতন করতেন। মৃত্যুর আগে তিনি চিরকুট ও একটি ভিডিও বার্তায় বলে যান তাঁর মৃত্যুর জন্য কারা দায়ী।

এদিকে অকালে পিতাকে হারিয়ে নির্বাক দুর্জয়ের স্কুল পড়ুয়া দুই ছেলেমেয়ে অর্ণব পাল ও লিলি পাল। তাঁরা পিতার মৃত্যুর পেছনে দায়ীদের বিচার দাবি করেন।

এ বিষয়ে সদর মডেল থানার ওসি তদন্ত সেলিম উদ্দিন বলেন, মৃত্যুর আগে তিনি একটি চিরকুট লিখে গেছেন। সেটি তাঁর হাতের লেখা কিনা যাচাই করা হবে। সত্যতা পেলে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।