প্রেস বিজ্ঞপ্তি:
চকরিয়া উপজেলা বিএনপির আহবায়ক ও কৈয়ারবিল ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান শাহজাহান চৌধুরী ইন্তেকালে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী সালাহউদ্দিন আহমদ ও কক্সবাজার-১ (চকরিয়া-পেকুয়া) আসনের সাবেক সংসদ সদস্য এডভোকেট হাসিনা আহমেদ।
নেতাদ্বয় মরহুমের আত্মার মাগফেরাত কামনা ও শোকসন্তপ্ত পরিবারবর্গের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন।
শাহজাহান চৌধুরী বুধবার বেলা ১টার দিকে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে চট্টগ্রামের একটি বেসরকারি হাসপাতালে ইন্তেকাল করেন। ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৭২ বছর। তিনি পশ্চিম কৈয়ারবিল হামিদুল্লাহ সিকদার পাড়ার মরহুম ছৈয়দ আহমদ সিকদারের ৪র্থ ছেলে। মৃত্যুকালে ২ ছেলে ও ২ মেয়ে, স্ত্রীসহ অসংখ্য আত্মীয়স্বজন ও রাজনৈতিক গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।
এদিকে এক বিবৃতিতে ভারতের শিলংয়ে অবস্থানরত বিএনপি নেতা ও কক্সবাজারের কৃতিসন্তান সালাহউদ্দিন আহমদ ও তাঁর সহধর্মিনী সাবেক সংসদ সদস্য এডভোকেট হাসিনা আহমেদ বলেন, শাহজাহান চৌধুরীর মৃত্যু বিএনপির রাজনীতিতে শূন্যতার সৃষ্টি করেছে। এই শূন্যতা সহজে পূরণ হবার নয়।
তাঁরা বলেন, বিএনপির আন্দোলনমুখর সময়ে দলের দায়িত্বভার গ্রহণ করে শাহজাহান চৌধুরী নিজের জীবনের শেষ সময়টুকুও দলের জন্য উৎসর্গ করেছেন। তিনি শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের হাতে গড়া জাগো দলে যোগ দিয়ে নিজের রাজনৈতিক জীবন শুরু করেছিলেন। ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সম্পাদকের দায়িত্ব পালন থেকে শুরু করে আমৃত্যু চকরিয়া উপজেলা বিএনপির সাথে যুক্ত ছিলেন।
বিএনপির এই নেতাদ্বয় বলেন, শাহজাহান চৌধুরী জাতীয়তাবাদী আদর্শকে বুকে ধারণ করে পুরোটা জীবন কাটিয়েছেন। মৃত্যুর সময়ও তিনি সেই আদর্শের উপর প্রতিষ্ঠিত থেকে শেষ বিদায় নিয়েছেন। মহান আল্লাহ যেন তাকে ভুল ক্রটি ক্ষমা করে বেহেস্তের সর্বোচ্চস্থানে অধিষ্টিত করেন, সেই প্রত্যাশা ও দোয়া করেন সালাহউদ্দিন আহমদ ও হাসিনা আহমেদ।
প্রসঙ্গত, ২০২২ সালের ১ মে শাহজাহান চৌধুরীর চকরিয়া উপজেলা বিএনপির আহবায়কের দায়িত্ব দেয়া হয়।