[Sassy_Social_Share]

বিগত ১৯/০৯/২২ইং তারিখে প্রকাশিত অনলাইন পত্রিকা সিবিএন থেকে প্রকাশিত কক্সবাজার ইসলামিয়া কেন্দ্রে অনিয়ম ও স্বজনপ্রীতির অভিযোগ শীর্ষক নিউজটি ইসলামিয়া মহিলা কামিল মাদরাসা কর্তৃপক্ষের দৃষ্টিগোচর হয়েছে। ইসলামিয়া কেন্দ্রে অনিয়ম ও স্বজনপ্রীতির অভিযোগ শীর্ষক নিউজটি উদ্দেশ্য প্রণোদিত ও ষড়যন্ত্রমূলক। আমরা ইসলামিয়া মহিলা কামিল মাদরাসা কর্তৃপক্ষ উক্ত সংবাদের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। একটি পক্ষ নিজেরাই এই প্রতিষ্ঠানের সুনাম সুখ্যাতি নষ্ট করার লক্ষ্যে এমন উদ্দেশ্য প্রণোদিত হয়ে এ অপপ্রচার চালাচ্ছে। এখানে উল্লেখ্য যে, দাখিল পরীক্ষা’২২ কেন্দ্র কক্সবাজার ০১(৬১১) এর ১৮/০৯/২২ইং তারিখ অনুষ্ঠিত হাদীস শরীফ (বিষয় কোড: ১০২) বিষয়ের পরীক্ষায় একাডেমিক ভবন ০২ হল নং-৩০৩ কক্ষের কোন কোন পরীক্ষার্থী নৈর্ব্যক্তিক প্রশ্নের উত্তর খাতায় লিখার পরিবর্তে খাতার ভিতরের অংশে ( ) টিক মার্ক প্রদান করে। এ বিষয়ে নিম্নস্বাক্ষরকারী অবগত হলে তাৎক্ষনিকভাবে উক্ত কক্ষ প্রত্যবেক্ষককে দায়িত্ব হতে অব্যাহতি প্রদান করা হয় এবং সাথে সাথে এ ব্যাপারে পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক, বাংলাদেশ মাদরাসা শিক্ষা বোর্ড (বিএমইবি) ও উপ-পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মহোদয়কে অবগত করলে এ ব্যাপারে একটি প্রতিবেদন প্রদানের সিদ্ধান্ত দেন। তৎমতে প্রতিবেদন তৈরী করে মাদরাসা শিক্ষা বোর্ডে প্রেরণ করা হয় এবং সংশ্লিষ্ট দপ্তরেও প্রেরণ করা হয়। উদ্দেশ্য প্রণোদিত ও ষড়যন্ত্রমূলক উক্ত সংবাদে অভিভাবক ও সাধারণ জনগনকে বিভ্রান্ত না হওয়ার জন্য ইসলামিয়া মহিলা কামিল মাদরাসা কর্তৃপক্ষ হতে অনুরোধ করা হলো।

মোহাম্মদ মাহমুদুল করিম ফারুকী
অধ্যক্ষ (ভারপ্রাপ্ত)
ইসলামিয়া মহিলা কামিল মাদরাসা কক্সবাজার

কেন্দ্র সচিব
দাখিল পাবলিক পরীক্ষা-২২
কেন্দ্র কক্সবাজার-০১(৬১১)