আবু সায়েম, কক্সবাজারঃ
কক্সবাজার দক্ষিণ বনবিভাগ ও উখিয়া উপজেলা প্রশাসন যৌথ অভিযান চালিয়ে বালুখালী রোহিঙ্গা মার্কেট সংলগ্ন মরাগাছ তলা সংলগ্ন সংরক্ষিত বনাঞ্চলে সদ্য নির্মিত দোকান উখিয়া উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা ইমরান হোসাইন সজীবের নেতৃত্বে উখিয়া উপজেলার রেঞ্জ কর্মকর্তা গাজী শফিউল আলমসহ একদল বনকর্মীদের সহযোগিতায় ২৩ টি অবৈধ দোকান উচ্ছেদ করা হয়েছে।
এতে করে সরকারী সম্পদ ভূমিদস্যুদের হাত থেকে উদ্ধার করা হয়েছে প্রায় ৩ একর জমি। তবে ভূমিদস্যুদের কাউকে আটক করতে পারেনি।
১৮ সেপ্টেম্বর ( রবিবার )বিকেল ৪ টায় উখিয়া উপজেলার বালুখালী রোহিঙ্গা মার্কেট সংলগ্ন মরাগাছ তলায় উখিয়া উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ ইমরান হোসাইন সজীবের নেতৃত্বে রেঞ্জ কর্মকর্তা এবং স্টাফদের সহযোগিতায় অভিযান পরিচালনা করে অবৈধ ভাবে জবরদখলকৃত জায়গায় দোকান উচ্ছেদ করে জবরদখল মুক্ত করা হয়।বিষয়টি অবগত করেছেন উখিয়া রেঞ্জ কর্মকর্তা গাজী শফিউল আলম।
তিনি বলেন ভূমিদস্যুদের জায়গা হবে না,। যারা বন বিভাগের জমি দখল করে জবরদখল করছে তাদের আমরা কঠোর হাতে প্রতিরোধ করবো। বনবিভাগের জমিতে অবৈধভাবে নির্মাণকৃত দোকান জবরদখলের দায়ে অভিযান চালিয়ে ৩ একর জমি উদ্ধার করা হয়েছে । অভিযানে বিট কর্মকর্তা ,ভিলেজারসহ স্টাফগণ অংশ গ্রহণ ক‌রে।
সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের প্রস্তুতি চলছে বলে জানিয়েছেন রেঞ্জ কর্মকর্তা গাজী শফিউল আলম।
এদিকে অপর অভিযানে অবৈধ বালিভর্তি ডাম্পার আটক করে রেঞ্জ হেফাজতে নিয়ে আসা হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রেঞ্জ কর্মকর্তা গাজী শফিউল আলম।
কক্সবাজার দক্ষিণ বন বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা মোঃ সারওয়ার আলম বলেন, সরকারি বনভূমি উদ্ধারে বনবিভাগ সচেষ্ট রয়েছে। সরকারি জমিতে কেউ স্থাপনা নির্মাণ করলে উচ্ছেদ করা হবে এবং জবরদখল কারীদের বিরুদ্ধে অভিযান চালিয়ে বনভূমি রক্ষার্থে যথাযথ ভূমিকা পালন করবো। অভিযান চালিয়ে ভূমি জবরদখল এবং পাহাড়খেকোদের আইনের আওতায় আনা হবে। বন অপরাধ দমনে তথ্য দিয়ে সহযোগিতা করার আহ্বান জানান তিনি।