সংবাদ বিজ্ঞপ্তি:
আসন্ন শারদীয় দুর্গাপূজা সদর উপজেলাব্যাপি উৎসবমুখর পরিবেশ উদযাপনের লক্ষ্যে বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ কক্সবাজার সদর উপজেলার উদ্যোগে শুক্রবার (১৬ সেপ্টেম্বর) বিকেলে শহরের লালদিঘীর পাড়স্থ ব্রাহ্ম মন্দিরের শ্রী বিভূতি ভূষণ সেন মিলনায়তনে এই সভা অনুষ্ঠিত হয়। সাথে দায়িত্ব হস্তান্তর করা হয় সদর উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের নির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক বলরাম দাশ অনুপমকে।

adsqwসদর উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি এডভোকেট বাপপী শর্মার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উক্ত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি উজ্জ্বল কর বলেন, দুর্গাপূজায় সাম্প্রদায়িক সম্প্রতি অক্ষুন্ন রেখে, কোন প্রকার অপ্রতিকর ঘটনা যেন না ঘটে সেদিকে নজর দিতে সকলকে সজাগ থাকতে হবে। এসময় তিনি পূজা চলাকালে রাত বারটার পরে সাউন্ড সিস্টেম বন্ধ রাখার জন্য পূজা মন্ডপের নেতৃবৃন্দকে অনুরোধ জানান। এসময় বক্তারা প্রতিমা আনা নেওয়াতে কোন প্রকার যেন অসুবিধা না হয় সে লক্ষ্যে কক্সবাজার শহরসহ, বিভিন্ন ইউনিয়নের জরাজীর্ণ রাস্তাঘাট দ্রুত মেরামতের দাবি জানান। এতে প্রধান বক্তা ছিলেন জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক বেন্টু দাশ। বিশেষ অতিথি ছিলেন-জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সহ সভাপতি রতন দাশ, উদয় শংকর পাল মিঠু ও পৌর পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক জনি ধর। সদর উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক বলরাম দাশ অনুপমের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত উক্ত সভায় বক্তব্যে রাখেন-সদর উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সহ সভাপতি শ্রীমন্ত পাল সাগর, নিরুপম শর্মা, সাংগঠনিক সম্পাদক সবুজ শীল, সিনিয়র কর্মকর্তা দীপক দাশ, অমল কান্তি দে, খুরুশকুল ইউনিয়ন পূজা কমিটির সভাপতি মাষ্টার রতন কান্তি দে, ঝিলংজা ইউনিয়নের আহবায়ক তুষার কান্তি ধর, পিএমখালী ইউনিয়নের সভাপতি মাষ্টার আশীষ শর্মা, চৌফলদন্ডী ইউনিয়নের সভাপতি সুরেশ শর্মা, ভারুয়াখালী ইউনিয়নের সভাপতি আপন শর্মা। সভায় পিএমখালী ইউনিয়ন পূজা কমিটির সাধারণ সম্পাদক সজিব দাশ, চৌফলদন্ডী ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক টিটু কান্তি দেসহ সদর উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের কর্মকর্তা, সদস্যবৃন্দ ও সদরের আওতাধীন সকল পূজা মন্ডপের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানের শুরুতেই পবিত্র গীতাপাঠ করেন ছোটন। উল্লেখ্য-এবার সদর উপজেলার ৫টি ইউনিয়নের মোট ১৭টি প্রতিমা ও ১১টি ঘট পূজা অনুষ্ঠিত হবে।