নিজস্ব প্রতিবেদক
জিয়াউর রহমানের নেতৃত্বেই বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারের সদস্যদের হত্যা করা হয়েছিল। এখনো ষড়যন্ত্র অব্যাহত আছে। শেখ হাসিনাকে বারবার হত্যা করতে চেয়েছিল স্বাধীনতা বিরোধীচক্র।

স্বাধীনতার মহান স্থপতি ও জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭তম শাহাদত বার্ষিকী উপলক্ষে কক্সবাজার জেলা মডেল কৃষকলীগের আলোচনা সভায় বক্তারা এসব কথা বলেন।

বুধবার (৩১আগস্ট) সকালে কক্সবাজার সাংস্কৃতিক কেন্দ্র মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বক্তারা আরো বলেছেন, বাংলাদেশকে একটি ব্যর্থ ও অকার্যকর রাষ্ট্রে পরিণত করতে আরেকটি ১৫ আগস্ট ঘটানোর নীল-নকশা করছে দেশ বিরোধী চক্র। যে কোনো মুল্যে তাদের প্রতিহত করতে হবে।

কৃষক লীগের নেতাকর্মীদের দীপ্ত শপথের আহবান জানিয়ে বক্তারা বলেন, বাংলাদেশের উন্নয়নের ধারাবাহিকতা রক্ষা করতে আগামী নির্বাচনে আমাদের জিততে হবে।
তাই যে কোন মূল্যে শেখ হাসিনাকে আবারও ক্ষমতায় আনতে কৃষকলীগের নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।

জেলা সভাপতি রশিদ আহমদের সভাপতিত্বে এতে প্রধান অতিথি ছিলেন কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র মুজিবুর রহমান।

তিনি বলেন, বিএনপি-জামাত জোট সরকার বঙ্গবন্ধুর হত্যাকাণ্ডের বিচারের পথও তারা রুদ্ধ করে দিয়েছিলেন। আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসে যুদ্ধাপরাধী ও খুনিদের বিচার করেছে।

সাধারণ সম্পাদক আতিক উদ্দিন চৌধুরীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সভায় মেয়র মুজিব বলেন, একটি বিধ্বস্ত দেশকে পুনর্গঠনে নিজের সবটুকু প্রচেষ্টা চালিয়েছিলেন বঙ্গবন্ধু। ঘাতকদের কারণে তিনি বেশিদূর এগোতে পারেন নি। জাতির পিতার অসমাপ্ত কাজ সফলভাবে সমাপ্ত করছেন সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বঙ্গবন্ধুর জীবনী তুলে ধরে বক্তব্য দেন, কৃষকলীগের সাবেক জাতীয় পরিষদ সদস্য এম.এ হাসেম, কক্সবাজার জেলা সহ-সভাপতি আনিসুল হক চৌধুরী, জাকরিয়া চৌধুরী, সুজন কল্যাণ বড়ুয়া, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমান, সাংবাদিক শহিদুল্লাহ মেম্বার, সাংগঠনিক সম্পাদক রিয়াজ মোরশেদ, তথ্য ও গবেষনা সম্পাদক মোঃ শাহাদাত হোসাইন, সদস্য শেখ ইয়াকুব আলী ইমন।

এতে আরো বক্তব্য রাখেন, রামু কৃষকলীগের সভাপতি সালাহ উদ্দিন, শহর কৃষকলীগের সভাপতি এরশাদুজ্জামান সুমন, সাধারণ সম্পাদক তামজিদুল ইসলাম মিন্টু, টেকনাফ কৃষকলীগের সভাপতি জাহেদ হোসেন সম্রাট, সাধারণ সম্পাদক আমান উল্লাহ আমান, চকরিয়া সভাপতি আমির হোসেন আমু, মহেশখালী সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান চৌধুরী, সদর উপজেলা সভাপতি সেলিম উল্লাহ সেলিম, সাধারণ সম্পাদক জসিম উদ্দিন মুকুল, পেকুয়া সভাপতি শহিদুল ইসলাম শাহেদ, সাধারণ সম্পাদক খোরশেদ আলম, ঈদগাঁও উপজেলা সাধারণ সম্পাদক আবু রাশেদ ভুট্টো, মাতামুহুরি সভাপতি হাসান আলী, সাধারণ সম্পাদক কামরুজ্জামান সোহেল, কুতুবদিয়া আহবায়ক কায়সার সিকদার, উখিয়া সাধারণ সম্পাদক মো. ইব্রাহিম প্রমুখ।

আলোচনা সভার শুরুতে কোরআন তেলোয়াত করেন কক্সবাজার শহর কৃষকলীগের ৫নং ওয়ার্ড সহ-সভাপতি আরিফুল্লাহ নুরী।

সভায় জেলা সহ-সভাপতি বজল করিম মাস্টার, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক সনজিত চক্রবর্তী, সাংস্কৃতিক সম্পাদক হারুনুর রশিদ ও স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ফরিদুল আলমসহ উপজেলা সমুহের ৫ শতাধিক নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।

আলোচনা সভার শুরুতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ ১৫ আগস্টে নিহত সকল শহীদদের সম্মানে দাঁড়িয়ে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়েছে।

সভা শেষে শহীদদের আত্মার মাগফেরাত ও দোয়া কামনায় মোনাজাত করা হয়।

সবশেষে নেতাকর্মীদের সম্মানে মধ্যাহ্ন ভোজের আয়োজন ছিল।