রামু প্রতিনিধি:
রামুতে পারিবারিক বিরোধের জেরে হামলার শিকার হয়েছেন, রামু চৌমুহনী বণিক সমবায় সমিতি লি. এর সাবেক সহ সভাপতি কৃতি ফুটবলার রুহুল আমিন রকি। সোমবার, ২৯ আগস্ট রাত সাড়ে ৯ টায় রামু চৌমুহনীস্থ জরি হাউজের সামনে এ হামলার ঘটনা ঘটে। হামলায় গুরতর আহত রুহুল আমিন রকিকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় সোমবার রাতে রামু থানায় লিখিত এজাহার দিয়েছেন রুহুল আমিনের বড় ভাই মো. ফেরদৌস। এতে অভিযুক্তরা হলেন- রামুর ফতেখাঁরকুল ইউনিয়নের মন্ডলপাড়ার মৃত নজু মিয়া সওদাগরের ছেলে নুরুল আমিন এবং নুরুল আমিনের ছেলে মো. ফয়সাল।
এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে- রুহুল আমিন ও বাদি ফেরদৌস এর সাথে পৈত্রিক সম্পত্তি নিয়ে নুরুল আমিনের সাথে দীর্ঘদিন বিরোধ চলে আসছিলো। এরই জের ধরে সোমবার রাতে রুহুল আমিনের সাথে নুরুল আমিনের কথা কাটাকাটি হয়। কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে নুরুল আমিন ও তার ছেলে ফয়সাল দোকান থেকে ডেকে নিয়ে রুহুল আমিন রকিকে মারধর শুরু করে। এসময় নুরুল আমিন দা দিয়ে রুহুল আমিন রকির মাথায় কোপ দেয়। এতে রুহুল আমিন রক্তাক্ত হয়ে ঘটনাস্থলে পড়ে যান। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে প্রথমে রামু উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পরে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নিয়ে যান।
রুহুল আমিনের বড় ভাই মো. ফেরদৌস জানান- এ ঘটনার পরও হামলাকারি নুরুল আমিন তাদের আবারো মারধর ও প্রাণনাশের হুমকী দিচ্ছে। ফলে তারা পরিবার-পরিজন নিয়ে চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন।