হ্যাপী করিম, মহেশখালী:
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ১০টি বিশেষ উদ্ভাবনী উদ্যোগ প্রান্তিক পর্যায়ে বাস্তবায়নের চ্যালেঞ্জ এবং নতুন সম্ভাবনা চিহ্নিত করার পাশাপাশি উদ্যোগ সমূহের বহুল প্রচারে করণীয় নির্ধারণ বিষয়ে সুপারিশ প্রণয়নের উদ্দেশ্যে কক্সবাজার জেলার মহেশখালী উপজেলায় দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

২১ জুন মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১১টায় উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে মহেশখালী উপজেলা পরিষদের অডিটরিয়মে এই কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ ইয়াছিন এর সভাপতিত্বে কর্মশালায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন কক্সবাজার জেলার অতিরিক্ত ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ আবু সুফিয়ান। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন
মহেশখালী থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ আব্দুল হাই পিপিএম, মহেশখালী উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মাওলানা জহিরুল উদ্দিন, কক্সবাজার জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি এমএ আজিজুর রহমান বিএ, উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মিনু আরা ছৈয়দ।

প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ ১০টি উদ্যোগের বিষয়ক কর্মশালার সেই ১০টি পয়েন্টকে ৫টি গ্রুপের মাধ্যমে ভাগ করে ওয়ার্কশপ করা হয়।

উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম পরিচালনায় প্রশিক্ষণ কর্মশালায় মুখ্য আলোচক হিসেবে বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মোহাম্মদ আবু সুফিয়ান।
দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ কর্মশালায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ ১০টি উদ্ভাবনী নিয়ে আলোকপাত করেন, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার ফজলুল করিম, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম, উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা বিমলেন্দু কিশোর পাল, পিআইও রাশেদুল ইসলাম, এলজিইডি কর্মকর্তা সবুজ কুমার দে, উপজেলার মৎস্য কর্মকর্তা মোহাম্মদ আব্দুর রহমান খান, ইউআরসি ইলিয়াস ইন্সপেক্টর,
উপজেলা শিক্ষা অফিসার ভব রঞ্জন দাস, ইউএফপিও তাপস দত্ত, পৌর নির্বাহী কর্মকর্তা নুর মোহাম্মদ,
উপজেলা তথ্য অফিসার নয়ন বিশ্বাস, পল্লী সঞ্চয় ব্যাংকের ম্যানেজার আব্দুল মান্নান, উপজেলা উপ-সহকারী প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা মোহাম্মদ জাহিদুল ইসলাম, গোরকঘাটা খাদ্য গুদাম (ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা) মীর মোহাম্মদ সেলিম,উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার আজমল হুদা, মহেশখালী পল্লী বিদ্যুৎ এর ডি.জি আল আমিন, সাবেক উপজেলা কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা সালেহ আহমদ,
উপজেলা মসজিদের খতিব মোহাম্মদ এনামুল হক, কুতুবজোম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এডভোকেট শেখ কামাল, ধলঘাট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কামরুল ইসলাম, উপজেলার পুজা উদযাপন কমিটি সভাপতি ব্রজ গোপাল ঘোঘ,উপজেলা ফিল্ড সুপারভাইজার ইসলামী ফাউন্ডেশন সৈয়দ মুহাম্মদ মীর কাসেম, এসএই, জিপিএইচই রমিজ উদ্দিন, ইউওআইডিও মোহাম্মদ মাহাবুবুর রহমান, প্রেসক্লাবের সভাপতি আবুল বশর পারভেজ, মহেশখালী সবখবর সম্পাদক মাহবুব রোকন, বৌদ্ধ সম্প্রদায় প্রতিনিধি জনি মং, দৈনিক ইনানী মহেশখালী প্রতিনিধি আনম হাসান’সহ কর্মশালায় সরকারি কর্মকর্তা, জনপ্রতিনিধি, সাংবাদিক ও এনজিও কর্মকর্তাগণ অংশগ্রহণ করেন।

কর্মশালায় ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ, বিনিয়োগ বিকাশ, আশ্রয়ন প্রকল্প, নারীর ক্ষমতায়ন, শিক্ষা সহায়তা কর্মসূচি, ডিজিটাল বাংলাদেশ, পল্লী সঞ্চয় ব্যাংক, সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচি, পরিবেশ সুরক্ষা, কমিউনিটি ক্লিনিক ও শিশুর অধিকার নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়।

কর্মশালায় সভাপতি এর বক্তব্যে উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা মোহাম্মদ ইয়াছিন বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কর্তৃক ১০টি বিশেষ উদ্ভাবনী উদ্যোগ তৃণমূল পর্যায়ে বাস্তবায়ন হওয়ার ফলে মানুষের জীবনযাত্রার মান উন্নত হয়েছে। প্রতিটি ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ বাতি জ্বলছে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অবকাঠামো উন্নত হওয়ার ফলে উন্নত পরিবেশে শিক্ষার্থীরা লেখাপড়ার সুযোগ বৃদ্ধি পেয়েছে। ঠিকানাবিহীন মানুষগুলো আশ্রয় কেন্দ্রে তাদের ঠিকানা হয়েছে। কমিউনিটি ক্লিনিকের মাধ্যমে স্বাস্থ্যসেবার মানও বৃদ্ধি পেয়েছে।

তিনি আরো বলেন, বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা যেমন আমাদের সোনালি অতীতকে স্মরণ করিয়ে দেয়, তেমনি প্রধানমন্ত্রীর ১০টি বিশেষ উদ্যোগ আমাদের সোনালি ভবিষ্যতের সম্ভাবনাও জাগিয়ে দিয়েছে। এর মাধ্যমে আমাদের জীবন, সমাজ ও দেশকে ক্ষুধা, দারিদ্র্যমুক্ত ও স্বনির্ভর বাংলাদেশ গড়তে শক্তি যোগাবে।

 
  
%d bloggers like this: