হাফেজ মুহাম্মদ আবুল মঞ্জুর:
রামু উপজেলার রাজারকুল ইউনিয়নের অন্যতম প্রধান একটি সড়কের বেহাল দশার কারণে পথচারিদের ভোগান্তির যেন শেষ নেই। রাজারকুল ইউনিয়ন পরিষদ সম্মুখস্থ প্রাচীন এ সড়ক দিয়ে সে ইউনিয়নের লোকজনসহ বিভিন্ন এলাকার অসংখ্য মানুষ ও প্রয়োজনীয় যানবাহন চলাচল করে। কিন্তু রেলওয়ে প্রকল্পের নির্মাণ চলমান কাজ, সেই সাথে তাদের নির্মাণ সামগ্রী, বালি ও মাটি বহনকারী গাড়ি চলাচলের কারণে রেলপথে নির্মিত আন্ডারপাসের উভয় পাশে এ সড়কটির বিশাল অংশ গর্তে পরিণত ও কাদায় একাকার হয়ে যায়। ফলে বৃহত্তর ইউনিয়নবাসীসহ পথচারিদের দূর্ভোগ যেন বেড়েই চলেছে। বিশেষতঃবিশেষ করে বর্ষা মৌসুমে নানা শ্রেণি-পেশার লোকজন ছাড়াও প্রতিদিন রাজারকুল আজিজুল উলুম মাদ্রাসা, মাছুমিয়া ইসলামিয়া সুন্নিয়া আলিম মাদ্রাসা, মনছুর আলী সিকদার উচ্চ বিদ্যালয়, ফজল আম্বিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে পড়ুয়া অসংখ্য ছাত্র-ছাত্রী ও ইউনিয়নে পরিষদে প্রয়োজনীয় কাজে যাতায়াতকারীরা অন্তহীন ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন। কিন্তু জনসাধারণের এমন দূর্ভোগ দেখার যেন কেউ নেই। ভুক্তভোগী এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে রেলওয়ে, এলজিইডি ও ইউপি চেয়ারম্যানের সাথে যোগাযোগ করা হলেও মিলেনি কোন প্রতিকার। তারা পরস্পের ওপর দায় চাপিয়ে এড়িয়ে যান বলে জানান রাজারকুল উন্নয়ন ফোরামের সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা মুহাম্মদ দিদারুল আলম।

এদিকে জনগুরুত্বপূর্ণ এ সড়কের বেহাল দশার কারণে জনদূর্ভোগ কিছুটা হলেও লাঘব করার জন্য এগিয়ে আসেন, রাজারকুল উন্নয়ন ফোরাম নামে একটি সামাজিক সংগঠন। এ সংগঠনের সদস্যবৃন্দ গতকাল ১৯ জুন (রবিবার) প্রচণ্ড বৃষ্টি উপেক্ষা করে স্বেচ্ছাশ্রমে সড়কটির কাদায় একাকার হওয়া অংশে বালির বস্তা দিয়ে কোনরকম হেটে চলাচল উপযোগী করার চেষ্টা চালান। সাধারণ সম্পাদক এরশাদুল হক ও সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা মুহাম্মদ দিদারুল আলমের নেতৃত্বে স্বেচ্ছাশ্রমে এ মানবিক কাজে অংশ নেন, সিনিয়র সদস্য মুহাম্মদ হাবিব, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক জিয়াউদ্দিন মুর্শেদ, অর্থ সম্পাদক বোরহান উদ্দিন, সহ- অর্থ সম্পাদক কাইছার হামিদ, মুহাম্মদ রাশেদ, দপ্তর সম্পাদক মুহাম্মদ রাশেদুল হক, সহ-দপ্তর সম্পাদক মুহাম্মদ জাহেদ, সদস্য আলমগীর হোছাইন, মুহাম্মদ শফি, শফিউল্লাহ (পাখি), মুহাম্মদ মামুন। তাদের এ মানবিক উদ্যোগে একাত্মতা পোষণের জন্য ছুটে যান স্থানীয় ইউপি সদস্য ও উন্নয়ন ফোরামের সহ-সভাপতি বোরহান উদ্দিন রব্বানী।
এ সংগঠনের সভাপতি, শিক্ষক নুরুল হক, সাধারণ সম্পাদক এরশাদুল হক ও সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা মুহাম্মদ দিদারুল আলমসহ নেতৃবৃন্দ সড়কটিতে চরম জনদূর্ভোগ লাঘবে অবিলম্বে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ, সড়ক ও জনপথ বিভাগ, ইউপি চেয়ারম্যান ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের যথাযথ উদ্যোগ গ্রহনের দাবি জানান।

 
  
%d bloggers like this: