আব্দুস সালাম,টেকনাফ(কক্সবাজার)
কক্সবাজারের টেকনাফে বিজিবি’র পৃথক অভিযান চালিয়ে চারজন আসামীসহ ১ কোটি ৮ লক্ষ ৪৩ হাজার ৫শত টাকা মূল্যমানের ৯৮০পিস ইয়াবা ট্যাবলেট, বিভিন্ন চোরাচালানী মালামাল এবং ১টি ট্রাক জব্দ করা হয়েছে। এসময় জড়িত চারজন আসামীকে আটক করা হয়।

টেকনাফ ২ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল শেখ খালিদ মোহাম্মদ ইফতেখার গণমাধ্যমকে এসব তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান,রবিবার (১৯ জুন) রাতে টেকনাফ ২ বিজিবি ব্যাটালিয়ন এর অধীনস্থ দমদমিয়া বিওপি’র একটি
টহলদল দমদমিয়া চেকপোষ্টে নিয়মিত তল্লাশী কার্যক্রম পরিচালনা করছিল। কিছুক্ষণ পর কক্সবাজার হতে টেকনাগামী একটি ট্রাক দমদমিয়া চেকপোষ্টের নিকট আসলে তা তল্লাশীর জন্য থামানো হয়। পরে উক্ত ট্রাকটি তল্লাশীকালীন সময়ে চালক ও হেলপারের আচরণ সন্দেহজনক হওয়ায় তাদের পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে তল্লাশী এবং জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়।
তল্লাশীর এক পর্যায়ে সরকারী কর/শুল্ক ফাঁকি দিয়ে বহনকৃত ৩৩ লক্ষ ৭৫ হাজার টাকা মূল্যের ৬ হাজার ৭৫০ পিস বেবি সেট এবং ৩১ লক্ষ ৬৮ হাজার টাকা মূল্যের ২, হাজার ৮৮০ কেজি চুল জব্দ করতে সক্ষম হয়। অবৈধভাবে চোরাচালানী মালামাল বহনের দায়ে ৪০ লক্ষ টাকা মূল্যের বর্ণিত ট্রাকটিও আটক করা হয়।
আটককৃত হচ্ছেন,কক্সবাজার পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ডের চাউলবাজার এলাকার পু সে এর ছেলে অং হেন সিন (৪২),
উখিয়া হলদিয়া পালং ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডের হলদিয়া পালং এলাকার মৃত নুরুল ইসলাম ছেলে মোঃ জসিম (৩৫) ও একই ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের মরিচ্যা কোটবাজার এলাকার মোঃ বাছা মিয়া ছেলে মোঃ জামাল উদ্দিন (২৪),।

আটককৃত মালামালের মালিককে অধিকতর জিজ্ঞাসাবাদে উক্ত মালামালগুলি মায়ানমারে পাচারের উদ্দেশ্যে নিয়ে যাচ্ছে মর্মে স্বীকার করে। উল্লেখিত মালামালের কোন বৈধ কাগজপত্র না থাকায় এবং সরকারী কর/শুদ্ধ ফাঁকি দিয়ে চোরাচালানী মালামাল বহনের দায়ে উক্ত ব্যক্তিদের (ট্রাক চালক, হেলপার ও মালামালের মালিক) মালামাল এবং ট্রাকসহ আটক করা হয়।
আটককৃত আসামীদের কাছ থেকে ৬ হাজার টাকা মূল্যের ৩টি মোবাইল ফোনও জব্দ করা হয়।

এছাড়া অপরদিকে একইদিনে টেকনাফ ২ বিজিবি ব্যাটালিয়ন এর অধীনস্থ হোয়াইক্যং বিওপি’র একটি টহলদল হোয়াইক্যং চেকপোষ্টে নিয়মিত তল্লাশী কার্যক্রম পরিচালনা করছিল। টেকনাফ থেকে কক্সবাজারগামী একটি বাস (এস আলম পরিবহন) তল্লাশীকালে একজন যাত্রীর আচরণ সন্দেহজনক হওয়ায় উক্ত যাত্রীকে চেকপোষ্টে কর্তব্যরত সৈনিক দ্বারা পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে তল্লাশী এবং জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। তল্লাশীর
একপর্যায়ে উক্ত যাত্রীর বসার সীটের নীচ হতে অভিনব পদ্ধতিতে ফিটিং অবস্থায় ২ লক্ষ ৯৪ হাজার টাকা মূল্যের ৯৮০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয়। এসময় আটক আসামীর কাছ থেকে ১টি মোবাইল ফোনও জব্দ করা হয়।
আটককৃত ব্যক্তি হচ্ছেন,সিরাজগঞ্জ জেলার বেলকুচি থানার দৌলতপুর ইউনিয়নের গোপালপুর এলাকার সানেজ আলী সরকারের ছেলে মোঃ জাহাঙ্গীর আলম (৩৭)।

তিনি আরো জানান, উদ্ধারকৃত চোরাচালানী মালামাল (বেবি সেট, চুল, ট্রাক, ও মোবাইল ফোন) টেকনাফ শুল্ক গুদামে জমা
করা হয়। ইয়াবাসহ পৃথকভাবে আটককৃত ৪ জন আসামীকে নিয়মিত মামলার মাধ্যমে টেকনাফ মডেল থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

 
  
%d bloggers like this: