দেলওয়ার হোসাইন:

জমে উঠেছে বাঁশখালীর ইউপি নিবার্চন । নবীণ প্রবীণ প্রার্থীদের নিয়ে চলছে চুলছেড়া বিশ্লেষণ, ভোটারদের দ্বারে দ্বারে যাচ্ছেন প্রার্থীরা। দলীয় ব্যানারে চেয়ারম্যান প্রার্থীরা প্রচারনায় তাকলেও সবচেয়ে বেশী প্রচারনা চালাচ্ছে সাধারণ সদস্য প্রার্থীর। প্রচারণার মাধ্যম হিসেবে পোষ্টার ব্যানার হ্যান্ডবিল মাইকিংএর পাশাপাশি প্রধান্য পাচ্ছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক। নির্বাচনী গল্পে চায়ের কাপে ঝড় উঠেছে গ্রামের চায়ের দোকান গুলোতে । এবারে গল্পের কেন্দ্রবিন্দুতে রয়েছে চাম্বল ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের মেম্বার প্রার্থীদের নিয়ে । এওয়ার্ডে ৫জন সদস্য প্রার্থীদের মধ্যে ২জন রয়েছেন নিকট আতœীয় শ্যালক এবং ভগ্নিপতি । গত দুবারে সাবেক ইউপি সদস্য ভগ্নিপতি বয়সে প্রবীণ হলেও তরুণ প্রার্থী শ্যালকে নিয়ে চলছে ব্যাপক আলোচনা। এলাকা গুরে দেখা যায় মুল প্রতিদ্ব›িদ্বতাই হবে এদুজন প্রার্থীর মধ্যে হবে। সুযোগ খুজছেন অন্য প্রার্থীরাও । নবীণ প্রবীণদের নিয়ে আলোচনা সমলোচনার কমতি নেই । শ্যালকের পক্ষ হয়ে তরুণদের সুরে সুর মেলাচ্ছে বয়স্ক ভোটারা। অভিজ্ঞতার কাতারে সামিল হতে তরুণদের দলে হানা দিচ্ছে প্রবীণ প্রার্থী দুলাভাই। সবমিলে গল্পের খোরাক জোগিয়েছে চাম্বল ইউপির ৮নং ওয়ার্ডের এদুজন প্রার্থী নিয়ে,জয়ের ব্যাপারে দুজনই শতভাগ আশাবাদী রয়েছেন।

ফুটবল প্রতিক নিয়ে নির্বাচন করছেন শ্যালক মোহাম্মদ ইয়াসিন চৌধুরী রিপন। বয়সে নবীণ এ প্রার্থী ২০১০ সালে চাম্বল উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি ২০১৪ সালে চট্টগ্রাম ওমরগনি এমইএস কলেজ থেকে এইচ এসসি বর্তমানে একটি প্রাইভেট বিশ^বিদ্যালয়ে অধ্যায়নরত আছেন। নিকট আতœীয় ভগ্নীপতির সাথে কেন প্রতিদ্বন্ধিতায় গেলেন এবিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ভোটের মাঠে বাবা ছেলে ,মা মেয়ে, ভাই ভাইয়ে, চাচা ভাতিজা,স্বামী স্ত্রী মধ্যে প্রতিদ্বন্ধিতা হতে পার শালা দুলা ভাইয়ের মধ্যে কেন নয় । তবুও আমি মনোনয় ফরম নেয়ার আগে আপাকে জিজ্ঞাস করেছিলাম দুলাম দুলাভাই নির্বাচন করবে কিনা তিনি করবেনা বলে জানিয়েছিল,যেহেতু তিনি দুবারের সাবেক মেম্বার ছিলেন তাই দুলাভাইকে নির্বাচনের বিষয়ে অবগত করেই ফরম নিয়েছি পরে শুনাল তিনি নির্বাচন করবে, আমার এলাকার মুরব্বিরা আমাকে নির্বাচনের মাঠে তাকার সাহস যুগিয়েছে । তরুণ সমাজকে এদেশের হাল না ধরলে দেশে আগামীর নেতৃত্ব দেয়ার লোক তৈরী হবেনা তাই তরুণরা আগামীর হাল ধরতেই সামনে এগিয়ে যাচ্ছি। তরুণ প্রজন্ম এক হলে জয়ের ব্যাপারে শত ভাগ আশাবাদী মনে করেন তিনি ।

সাবেক দুবারের মেম্বার মোহাম্মদ আলী মোরগ প্রতিক নির্বাচন করছেন তিনিও নিয়ে প্রচারনায় পিছিয়ে নেই। তরুণ শ্যালকের সাথে প্রতিদ্ব›িদ্বতা কেমন হবে জানতে চাইলে তিনি জানান, নির্বাচন করা সকল নাগরিকের অধিকার আমি তাকে কেন বাধা দেব, আমি একজন নাগরীকের অধিকার খর্ব করতে চাইনা । আমি তার দুলাভাই হিসেবে আমার কাছে এসে ভোটও চাইতে পারে । যদি সে জয়ী হয় আমার কোন দুঃখ থাকবেনা । আমি অভিজ্ঞ মানুষ মানুয়ের সেবা আসছি সার জীবন করে যাবো ইনশআল্লাহ তাই তরুণ প্রজন্ম অভিজ্ঞ দেখে ভোট দিবেন । তিনিও জয়ের ব্যাপারে শতভাগ আশাবাদী ।

বর্তমান মেম্বার মোহাম্মদ হোছাইন আপেল প্রতিক নিয়ে নির্বাচন করছেন । তিনি বলেন, আমি আমার ওয়ার্ডে মাদক জুয়া নির্মূল সহ ব্যাপক উন্নয়ন করেছি সুতরাং আমাকে আবার জনগন নির্বাচিত করবে।

টিউবওয়েল প্রতিক নিয়ে নির্বাচনের মাঠে শক্ত অবস্থানে আছেন বলে দাবী মোহাম্মদ রিদুয়ান । ২জন মেম্বার প্রার্থী নিকট আতœীয় হওয়া এবার জনগন তাকেই জয়যুক্ত করবেন বলে তিনিও আশাবাদী।

ঘুড়ি প্রতিক নিয়ে নির্বাচনের মাঠে আছেন ওর্য়াড আওয়ামীলীগের সভাপতি গিয়াস উদ্দিন। তিনি বলেন আমার দলীয় নেতা কর্মী ও আতœীয় স্বজন আমাকে ভোট দিলে আমি জয়লাভ করবো । তিনিও জয়ের ব্যাপারে শতভাগ আশাবাদী ।

এদিকে ৮নং ওয়ার্ডের ভোটার প্রবীণ মুরব্বি লেদু সওদাগর বলেন এবার আমরা অভিজ্ঞ তরুণ শিক্ষিত প্রার্থীকেই ভোট দিয়ে নির্বাচিত করবো। শেষ ধাপের নির্বাচনে আগমাী ১৫ জুন বাঁশখালী উপজেলার ১৪টি ইউনিয়নে ভোট গ্রহন অনুষ্টিত হবে । এবারে সবকটি কেন্দ্রে ইভিএমের মাধ্যমে ভোট নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কর্মকর্তা মোহাম্মদ ফয়সল আলম।
চাম্বাল ইউপির ৮ নং ওয়ার্ডে মোট ১হাজার ৯শত৬ ভোটারের মধ্যে পুরুষ ভোট ১০৫৩, মহিলা ৮৫৩ ভোট, শেষ পযর্ন্ত জয়ের মালা কার গলায় পড়বে তার জন্য আগামী ১৫ জুন রাত পযর্ন্ত অপেক্ষা করতে হবে ।