জালাল আহমদ,ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি:
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ সার্জেন্ট জহুরুল হক হলের পুকুরে ডুবে নৃবিজ্ঞান বিভাগের ৩য় বর্ষের (২০১৮-১৯ সেশন) ছাত্র আরিফুর রহমান পলাশ‌ মৃত্যুবরণ করেছেন৷তার পিতার নাম আতাউর রহমান।তার গ্রামের বাড়ি জামালপুর জেলার মাদারগঞ্জ উপজেলায়।
আজ দুপুর বারোটা ৪০ মিনিটের
দিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ সার্জেন্ট জহুরুল হক হলের পুকুরে সাঁতার কাটে নামেন পলাশ। পুকুরের এক পাশ থেকে সাঁতার কেটে আরেক পাশে গিয়ে পুনরায় ফিরে আসতে গিয়ে পুকুরের মাঝখানে ক্লান্ত হয়ে ডুবে যায়। হলের সাধারণ শিক্ষার্থীরা তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করান । অবস্থা গুরুতর হলে তাকে লাইফ সাপোর্টে নেয়া হয়। দুপুর তিনটার দিকে তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
পলাশ কে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার সময় সাথে থাকা এবং ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ সার্জেন্ট জহুরুল হক হলের ছাত্র আবদুল ওয়াহেদ মিনহাজ জানান , আমি জানতে পেরেছি সকালে পলাশ ফুলবল খেলেছিল। খেলাধুলা করার পর পুকুরে সাঁতার কাটতে গিয়েছিল। হলের পুকুরে গোসলরত ছাত্ররা হঠাৎ লক্ষ্য করলেন যে পলাশ পুকুরের মাঝখানে ডুবে যাচ্ছে।তাই হলে সাঁতার জানা কয়েকজন ছাত্র তাকে উদ্ধার করে হল প্রশাসনের সহায়তায় ঢাকা মেডিকেল কলেজে ভর্তি করান। অবস্থা গুরুতর হলে আইসিইউ তে নিয়ে যাওয়া হয়। দুপুর তিনটার দিকে কর্মতব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
শহীদ সার্জেন্ট জহুরুল হক হলের প্রভোস্ট অধ্যাপক ডঃ মোহাম্মদ আবদুর রহিম জানান, তার পরিবারের সদস্যদের কে খবর দেওয়া হয়েছে।পরিবারের তার ছোট ভাই ঢাকায় আসছে।তাকে লাশ বুঝিয়ে দেওয়া হবে।