নিজস্ব প্রতিবেদক:
উখিয়া উপজেলার জালিয়া পালং ইউনিয়নের ১ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সম্মেলন ও কাউন্সিল অধিবেশনে গঠনতন্ত্র পরিপন্থি, শৃঙ্খলা ভঙ্গ সহ ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে।
বিশেষ করে যুবদল ছাত্রদল নেতার নাম এবং রাজাকারের সন্তানদের নাম কাউন্সিলারের তালিকায় অন্তর্ভুক্ত হওয়ায় এ নিয়ে আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীদের মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে। উক্ত সম্মেলন বাতিল করে পুনরায় কাউন্সিলারদের তালিকা তৈরি পূর্বক নতুন করে সম্মেলন করার জন্য লিখিত ভাবে আবেদন জানিয়েছেন।
পাইন্যাশিয়া – জুম্মা পাড়া গ্রামের মৃত জবর মুল্লুকের ছেলে তৃণমূলের ত্যাগী ও নির্যাতিত আওয়ামী লীগ নেতা জাফর আলম গত রবিবার বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভানেত্রী ও সাধারণ সম্পাদকসহ জেলা নেতৃবৃন্দের কাছে এ সংক্রান্ত বিষয়ে লিখিতভাবে অভিযোগ দায়ের করেছেন বলে জানা গেছে।
লিখিত অভিযোগে উল্লেখ করেছেন জালিয়া পালং ১ নম্বর ওয়ার্ডের সম্মেলন ও কাউন্সিল অধিবেশন গত ৬ এপ্রিল সাংগঠনিক টিমের প্রধান শাহ আলম চৌধুরী রাজা শাহ আলমের বাসায় অনুষ্ঠিত হয় । যুবদলের ওয়ার্ড কমিটির নেতা হাবিবুর রহমান ও সুজাউদ্দিন এবং ছাত্রদলের আলমগীর রেজা এবং রাজাকারের ২ জন সন্তানের নাম কাউন্সিলর তালিকা অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে ।
স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা জাফর আলম অভিযোগ করে বলেন , কাউন্সিল অধিবেশনে সভাপতি পদে সরাসরি ভোটে আমরা দুজন প্রার্থী সমান সংখ্যক ৭৩ বোর্ড প্রাপ্ত হই। শাহ আলম চৌধুরী ক্ষমতার প্রভাব বিস্তার করে সাংগঠনিক টিমের ৭ জন ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকসহ ৯ জনের ভোট গ্রহণ করে আমাকে সভাপতির পদ থেকে হারিয়ে দেওয়া হয়।
লিখিত অভিযোগে আরো উল্লেখ করা হয়, চাকপাড়া আবদুর রহমান বদি এমপি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে গত ৫ এপ্রিল কাউন্সিলর তালিকা যাছাই – বাছাইকালে বেলাল ও জসিমকে বাদ দেওয়ার জন্য অভিযোগ করা হলেও তাদেরকে বাদ দেওয়া হয়নি। সাংগঠনিক টিমের প্রধান উল্টো সবার সম্মুখে ধমক দেয়। ১ নম্বর ওর্য়াড় আওয়ামী লীগের সম্মেলন ১০ কিলোমিটার দূরে রাজা শাহ আলমের বাড়িতে ৪ নম্বর ওয়ার্ডে আয়োজন করা এটি গঠনতন্ত্র পরিপন্থি। আওয়ামী লীগের নবায়ন ফরম পূরণ করে নাই এমন লোককে কাউন্সিলার করা হয়েছে। ৩৮ নম্বর রাজাকারের ২ জন ছেলের নাম কাউন্সিলর তালিকায়। এটি বড় লজ্জাজনক।
এদিকে গঠনতন্ত্র পরিপন্থি, শৃঙ্খলা ভঙ্গ ও ব্যাপক অনিয়মের মাধ্যমে অনুষ্ঠিত সম্মেলন বাতিল করে পুনরায় কাউন্সিল তালিকা তৈরি গঠনতন্ত্র মোতাবেক নতুন সম্মেলন এবং কাউন্সিল অধিবেশনের দাবি জানিয়েছেন স্থানীয় তৃণমূলের নেতাকর্মীরা।

 
  
%d bloggers like this: