অনলাইন ডেস্ক: চট্টগ্রামের অন্যতম পাইকারি বাজার পাহাড়তলীতে এক গোডাউনে মিলেছে ১৫ টন বোতলজাত সয়াবিন তেল। সোমবার (৯ মে) দুপুর ১২টায় বাজারের মেসার্স সিরাজ স্টোরে অভিযান চালিয়ে প্রতিষ্ঠানটির গোডাউনে মজুত এসব তেলের সন্ধান পায় জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর।

নতুন দর নির্ধারণের আগেই এসব তেল মজুত করা হয় বলে জানিয়েছেন অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা। তাৎক্ষণিকভাবে এসব তেল খুচরা ব্যবসায়ীসহ সাধারণ ভোক্তাদের কাছে বিক্রির নির্দেশ দেওয়া হয়। পাশাপাশি প্রতিষ্ঠানটিকে এক লাখ ৭০ হাজার টাকা জরিমানাও করা হয়।

এদিকে আগের দরে সয়াবিন তেল বিক্রির খবর ছড়িয়ে পড়লে আশপাশের খুচরা মুদি দোকানি, রেস্টুরেন্ট, খাবারপণ্য প্রস্তুতকারী চা দোকানের লোকজন তেল কিনতে লাইনে দাঁড়ান। সময় বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে এই লাইন আরও দীর্ঘ হয়।

বিকেল ৩টায় এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ডিলারের দরে প্রতি লিটার ১৫০ টাকা করে বিক্রি হচ্ছিল এসব সয়াবিন তেল। তবে ভোক্তাদের অভিযোগ, প্রথম দিকে ২০ লিটারের প্যাকেটে পাঁচ লিটারের চার বোতল তিন হাজার টাকায় বিক্রি করলেও পরে ক্রেতাদের পাঁচ প্যাকেট করে নিতে বাধ্য করা হচ্ছে।

এ ব্যাপারে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর চট্টগ্রামের সহকারী পরিচালক আনিছুর রহমান জাগো নিউজকে বলেন, ঈদের আগে ও পরে সয়াবিন তেল নিয়ে সারাদেশে মাতামাতি চলছে। এরমধ্যেও অনেকে অবৈধভাবে ভোজ্যতেল মজুত করছেন। পাহাড়তলী বাজারে সিরাজ স্টোর নামের এক ডিলারের গোডাউনে ১৫ হাজার লিটার বোতলজাত সয়াবিল তেল পাওয়া গেছে। এসব তেল এখন তাৎক্ষণিকভাবে ডিলার রেটে বিক্রির নির্দেশ দেওয়া হচ্ছে।

তিনি বলেন, এখানে পাওয়া তেল আগের দরের। পাঁচ লিটার বোতলের গায়ে সর্বোচ্চ বিক্রয়মূল্য ৭৬০ টাকা লেখা রয়েছে। তাই আগের মূল্যেই তাদের বিক্রির নির্দেশনা দেওয়া হয়। পাশাপাশি প্রতিষ্ঠানটিকে এক লাখ ৭০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।
-জাগোনিউজ

 
  
%d bloggers like this: