প্রেস বিজ্ঞপ্তি:
রামুর চাকমারকুলে স্থাপনা নির্মাণে বাঁধা প্রদান ও চলাচলের পথ বন্ধ করে চাঁদা দাবি করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। চাঁদা না দেয়ায় হামলার শিকার হয়েছেন জমির মালিক আবু তাহের ও তার পরিবারের সদস্যরা। এ ঘটনায় রামু থানায় লিখিত এজাহার দিয়েছেন- রামুর চাকমারকুল ইউনিয়নের পশ্চিম চাকমারকুল গ্রামের মৃত মো. হোছনের ছেলে আবু তাহের।
লিখিত এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে- বাদি আবু তাহের চাকমারকুল ছালেহ আহমদ পাড়া এলাকায় খরিদ করা জমিতে সম্প্রতি মাটি কাটা, ভরাট ও সীমানা প্রাচীর নির্মাণ কাজ শুরু করেন। কাজের শুরু থেকে বাঁধা দিয়ে আসছেন- ওই এলাকার মৌলভী আমিন উল্লাহ ও তার ছেলে মো. আদিল, সোহাইল ছিদ্দিকসহ আরো একাধিক ব্যক্তি। এসব ব্যক্তিদের বাড়ির সামনের সড়ক দিয়ে আবু তাহের নির্মাণ কাজের মালামাল ও সরঞ্জাম পরিবহন করতেন। একারণে চক্রটি তাদের কাছ থেকে এ সড়কে মালামাল পরিবহন করতে হলে ৫ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন।
বাদী আবু তাহের অভিযুক্ত ব্যক্তিদের চাঁদা দিতে অপারগতা জানান। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে মৌলভী আমিন উল্লাহ ও তার ছেলেদের নেতৃত্বে একটি বাহিনী গত ১ মে তার জমিতে প্রবেশ করে আবু তাহের ও তার নির্মাণকাজে জড়িত শ্রমিকদের দেশীয় অস্ত্র লাটি-সোটা নিয়ে মারধর করে কাজে বাঁধা দেয়।
আবু তাহের জানান- এ ঘটনার পর তিনি আইনী পদক্ষেপ হিসেবে থানায় লিখিত এজাহার দেন। কিন্তু হামলাকারি ও চাঁদাবাজরা এখন তাকে ফাঁসাতে থানায় উল্টো মিথ্যা মামলা দায়ের করার জন্য উঠে পড়ে লেগেছে। এমনকি হামলাকারিরা রাজনৈতিক নেতাদের ম্যানেজ করে উল্টো মামলা রুজু করার এবং তাদের বিভিন্নভাবে হয়রানি, মারধর ও প্রাণনাশের হুমকী দিচ্ছে। এতে তিনি পরিবার-পরিজন নিয়ে চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন। এ ব্যাপারে তিনি পুলিশ প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

 
  
%d bloggers like this: