আনোয়ার হোছাইন ঈদগাঁও, কক্সবাজার:

কক্সবাজারের ঈদগাঁও উপজেলায় প্রকাশ্য দিবালোকে সন্ত্রাসী হামলায় মোঃ জাহাঙ্গীর আলম ( ৪২) নামের একজন গুরুতর আহত হয়েছে।
শুক্রবার (২২ এপ্রিল) জুমা’র নামাজ আদায় করতে যাওয়ার পথে উপজেলার ঈদগাঁও ইউনিয়নের পূর্ব ভোমরিয়াঘোনায় এ ঘটনা ঘটে। হামলার শিকার যুবক উক্ত এলাকার মৃত নুরুজ্জামানের ছেলে।

আহতের পরিবারের সদস্যরা জানান, জাহাঙ্গীর আলম শুক্রবার জুমার নামাজ আদায় করতে মসজিদে যাওয়ার পথে প্রতিবেশী আমির সুলতানের ছেলে চিহ্নিত সন্ত্রাসী ও একাধিক মামলার আসামী জয়নাল ও কামালের নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী আচমকা ধারালো অস্ত্র, হাতুড়ি ও লাঠি নিয়ে জাহাঙ্গীরকে উপুর্যুপরি আঘাত করতে থাকে।ঐসময় পথ দিয় ঈদগাঁও থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবদুল হালিমের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ভিন্ন স্থানে যাচ্ছিল।পুলিশ ঘটনা প্রত্যক্ষ করে এগিয়ে গেলে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়।স্বজনরা গুরুতর আহত জাহাঙ্গীরকে উদ্ধার করে স্থানীয় ক্লিনিকে নিয়ে গেলে চিকিৎসক অবস্থার অবনতি দেখে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে প্রেরণ করে।
স্থানীয় ইউপি সদস্য আবুল হাকিম হামলার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, আহতের মাথা,ঘাড়,কান ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখম ও রক্তাক্ত হওয়ার চিহ্ন রয়েছে ।
ঈদগাঁও থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) আবদুল
হালিমের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনিও ঘটনার সত্যতার স্বীকার করে বলেন,রাস্তা দিয়ে ভিন্ন গন্তব্যে যাওয়ার পথে সংঘটিত ঘটনা আচ করতে পেরে এগিয়ে গেলে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়।এখনো পর্যন্ত লিখিত কোন অভিযোগ না পেলেও জড়িতদের আটকের চেষ্টা চলছে। আহত ও হামলাকারী পক্ষ পাশাপাশি হওয়ায় যে কোন মুহুর্তে আবারো সংঘর্ষের আশংকা করছে স্থানীয়রা। এদিকে এলাকাবাসী জানান,হামলাকারীরা সন্ত্রাসী প্রকৃতির। ইতিপূর্বেও তারা এরুপ ঘটনা ঘটিয়েছে এবং তাদের বিরুদ্ধে একাধিক মামলা রয়েছে। তরা এলাকার আইনশৃঙ্খলা রক্ষার স্বার্থে সন্ত্রাসীদের আটকের জোর দাবি জানান।

 
  
%d bloggers like this: