অনলাইন ডেস্ক:  রাজধানীর নিউমার্কেটে ব্যবসায়ীদের সঙ্গে ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থীদের সংঘর্ষের ঘটনায় গুরুতর আহত হয়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন মোরসালিন নামের এক যুবক। আজ বৃহস্পতিবার ভোর ৫টার দিকে হাসপাতালটির নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্র, আইসিইউতে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। এ নিয়ে নিউমার্কেটের সংঘর্ষে দুজনের মৃত্যু হলো।

মোরসালিনের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ পরিদর্শক বাচ্চু মিয়া। তিনি বলেন, নিহতের মরদেহ হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে। ময়নাতদন্তসহ প্রয়োজনীয় প্রক্রিয়া অনুসরণ শেষে মরদেহ পরিবারের সদস্যদের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

পারিবারির সূত্রে জানা গেছে, নিউমার্কেটের একটি রেডিমেড দোকানে কর্মচারী হিসেবে কাজ করতেন মোরসালিন। থাকতেন কামরাঙ্গীরচর থানার পশ্চিম রসুলপুর এলাকায়। গত মঙ্গলবার সংঘর্ষের সময় গুরুতর আহত হন তিনি। সঙ্গে সঙ্গে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এর আগে আলোচিত এই সংঘর্ষের ঘটনায় কুরিয়ার সার্ভিসের এক কর্মীর মৃত্যু হয়েছে। তার নাম নাহিদ, বয়স ১৮। গত মঙ্গলবার রাতে তিনিও ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। এবার না ফেরার দেশে চলে গেলেন মোরসালিন।

নিউমার্কেটের ব্যবসায়ীদের সঙ্গে ঢাকা কলেজের ছাত্রদের সংঘর্ষ শুরু হয় গত সোমবার মধ্যরাতে। পরদিন মঙ্গলবারও দফায় দফায় সংঘর্ষ হয়েছে। সংঘর্ষের ঘটনায় পথচারী, শিক্ষার্থী, ব্যবসায়ী, হকারসহ শতাধিক মানুষ আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া, ইট-পাটকেল নিক্ষেপ এবং পুলিশের টিয়ার শেল ও রাবার বুলেটে এসব মানুষ আহত হন।

 
  
%d bloggers like this: