আব্দু সালাম,টেকনাফ (কক্সবাজার):
কক্সবাজারের টেকনাফ সদর ইউনিয়নের মহেয়খালীয়া পাড়া এলাকায় দুবাই প্রবাসী হোছাইন বাদশা মিয়ার ৪ সহোদর ছেলের উপর পূর্ব শত্রুতার জের ধরে নৃশংস ও সন্ত্রাসী হামলা চালিয়ে সহোদর চার ভাইকে গুরুতর আহত করেছেন একই গ্রামের সন্ত্রাসী বাহনী।

গত শনিবার রাতে সদর ইউনিয়নের মহেয়খালীয়া পাড়া এলাকার মৃত ছৈয়দুর রহমানের ছেলে পুরাতন রোহিঙ্গা আজিজুর রহমান (প্রকাশ দালাল আজিজ) এর ছেলে হাছান আহমদ(৪৫), রওশন(৪০), ছৈয়দুর রহমান(৩৮), আদেল(৩৫),আব্দুল আজিজ(৩৩) ও তার জামাতা কুলাল পাড়ার প্রকাশ টিংকুর নেতৃত্বে ৮/১০ জন ধারালো দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে প্রথমে বাদশা মিয়ার প্রতিবন্ধী ছেলে মঞ্জুর আহমদ(৩৩) হামলা করে পরে একে একে সহোদর ভাই হাছন আহমদ (৪৭), হাফেজ আহমদ(৪৫), শাকের আহমেদ (৪০) কে হত্যার উদ্যেশ্যে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে জখম করে গুরুতর অবস্থায় ফেলে চলে যায়। পরবর্তীতে এলাকাবাসী মুমূর্ষ অবস্থায় উদ্বার করে টেকনাফ উপজেলা হাসপাতালে নিয়ে গেলে আহতদের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের কক্সবাজার সদর হাসপাতালে রেফার করে। জেলা সদর হাসপাতাল থেকে বর্তমানে চট্রগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।
আহত পরিবারের দাবী,বেশকিছুদিন আগে প্রতিবন্ধী মঞ্জুরের কাছ থেকে একই গ্রামের সু-চতুর পুরাতন রোহিঙ্গা আজিজ টাকা নিয়ে ইউনিয়ন পরিষদ থেকে প্রতিবন্ধী ভাতার কার্ড বানিয়ে দিবে বলে মোটা অংকের টাকা নেন। প্রতিবন্ধী মঞ্জুরকে বিভিন্ন সময় আজিজকে কার্ডের কথা জিজ্ঞাসা করলে কালক্ষেপন করতে থাকে। গতকাল রাতেও এই সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে কথাকাটাকাটি হয়। কথাকাটাকাটির এক পর্যায়ে এই ঘটনা সংঘটিত হয়।
এদিকে প্রত্যক্ষদর্শীরা বলেন,নিরহ প্রবাসী পরিবারের উপর পূর্ব পরিকল্পিত ও সশস্ত্র হামলা করায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।
উক্ত হামলায় জড়িত সকল সন্ত্রাসীদের গ্রেপ্তার পূর্বক আইনানুগ ব্যবস্থা ও দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির আওতায় আনতে আইনশৃংখলা বাহিনীর প্রতি আহবান জানিয়েছেন তারা।
তারা আরো বলেন,প্রবাসী রেমিট্যান্স যোদ্ধা ও তাদের পরিবারের জানমালের নিরাপত্তার জন্য স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও প্রশাসনের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করা হয়।

 
  
%d bloggers like this: