আনোয়ার হোছাইন, ঈদগাঁও :

পৃথক ঘটনায় ২৪ ঘন্টার ব্যবধানে ঝরে গেলো ঈদগাঁও’র তিন তরতাজা প্রাণ। নিহতদের মধ্যে রয়েছে শিক্ষার্থী,ব্যাংকার ও ব্যাবসায়ী।
পৃথক ঘটনায় আকস্মিক ভাবে মৃত্যু বরণ কারীদের মধ্য একজন ১৮ মার্চ রাত ১০ টার দিকে চট্টগ্রাম -কক্সবাজার মহাসড়কের ইসলামপুর ইউনিয়নের ঝনঝনিয়া ব্রীজ নামক এলাকায় ঢাকাগামী সেন্টমার্টিন পরিবহন টমটমকে চাপা দিলে টমটমে থাকা যাত্রী আবদুল মজিদ(২২) ঘটনাস্থলেই নিহত হয়। সে ঈদগাঁও উপজেলার ইসলামপুর ইউনিয়নের কৈলাশের ঘোনা এলাকার আবু তাহেরের ছেলে এবং ঈদগাঁও কলেজের এইচএসসি পরীক্ষার্থী।পরদিন সকালে তার দাফন সম্পন্ন হয়।এ ঘটনায় অভিযান চালিয়ে ঘাতক বাসটি জব্দ ও চালককে আটক করেছে পুলিশ। মালুমঘাট হাইওয়ে পুলিশের ইনচার্জ মোহাম্মদ সাফায়েত ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, নিহতের পরিবার অভিযোগ বা মামলা দায়ের করলে পরবর্তী প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে ।

অপরজন হল কক্সবাজারের ইসলামী ব্যাংক ঈদগাঁও শাখার কর্মকর্তা শওকত ওসমান আকস্মিক ব্রেন স্ট্রোকজনিত কারণে শনিবার ( ১৯ মার্চ) সকাল ৭টার দিকে চট্টগ্রাম সেন্ট্রাল হাসপাতালে তিনি ইন্তেকাল করেন। ব্যাংক কর্মকর্তা শওকত উসমান চট্টগ্রামের বাঁশখালী ইলশা ইউনিয়নের পন্ডিত বাড়ি গ্রামের জামাল উদ্দিনের ছেলে । পন্ডিতবাড়ি জামে মসজিদে একই দিন বাদে আছর নামাজে জানাজা শেষে দাফন সম্পন্ন করা হয় বলে জানান ঈদগাঁও ইসলামী ব্যাংক শাখার কর্মকর্তা হাবিব উল্লাহ ।

একই দিন শনিবার ( ১৯ মার্চ) সন্ধ্যা সাড়ে ৭ টার দিকে চট্টগ্রাম -কক্সবাজার মহাসড়কের মালুম ঘাট হাছিনা পাহাড় এলাকায় লেগুনা ( ম্যাজিক গাড়ি) ও শামিম এন্টার প্রাইজ নামক যাত্রীবাহি বাসের ধাক্কায় ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় ঈদগাঁও থেকে মটর সাইকেল যোগে চকরিয়াগামী আবদুল মালেক(৪৯) প্রকাশ মালেক মাঝি’র।সে ঈদগাঁও উপজেলার ইসলামাবাদ ইউনিয়নের সাতজুলাকাটা গ্রামের মৃত নজির আহমেদের ছেলে এবং ৭ সন্তানের জনক।সে ইসলামপুর লবণ শিল্প এলাকার একজন প্রতিষ্ঠিত ব্যাবসায়ী। মালুমঘাট হাইওয়ে পুলিশের ইনচার্জ ইমন কান্তি চৌধুরী জানান, চালকসহ শামীম এন্টারপ্রাইজ নামক যাত্রীবাহি বাস এবং লেগুনা গাড়িটি আটক করা হয়েছে। লেগুনার চালক আহত হওয়ায় তিনি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এ ব্যাপারে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। এদিকে ২৪ ঘন্টা অতিবাহিত না হতেই তরতাজা তিনটি প্রাণের মৃত্যুর সংবাদে এলাকায় শোকের আবহ বিরাজ করছে।

 
  
%d bloggers like this: