জালাল আহমদ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হলগুলোতে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের কর্তৃক “গেস্টরুমে ম্যানার শিখানোর” নামে সাধারণ শিক্ষার্থীদের উপর অব্যাহত নির্যাতন, হলগুলোতে অব্যাহত দখলদারিত্ব কায়েম এবং সাধারণ শিক্ষার্থীদের উপর নির্যাতনের প্রতিবাদে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার নেতাকর্মীরা।
আজ রোববার ১৩ ই মার্চ সকাল ১১ টায় মধুর ক্যান্টিন থেকে মিছিলটি শুরু হয়ে ক্যাম্পাসের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে প্রতিবাদ সমাবেশের মাধ্যমে মিছিলটি শেষ হয়।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রদলের আহ্বায়ক মোঃ রাকিবুল ইসলাম রাকিবের সভাপতিত্বে এবং সদস্য সচিব মোঃ আমানউল্লাহ আমানের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ছাত্রদল কেন্দ্রীয় সংসদের সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন শ্যামল।এ সময় উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় সংসদের সহ-সভাপতি মামুন খান,সিনিয়র যুগ্ম-সম্পাদক আমিনুর রহমান আমিন,যুগ্ম-সম্পাদক তানজিল হাসান, মারুফ এলাহি রনি, শ্যামল মালুম, মাহাবুব মিয়া, সহ-সাধারণ সম্পাদক আকতার হোসেন, ইসামন্তাজ ইজাজ শাহ, সুলতানা জেসমিন জুই , ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদলের সিনিয়র যুগ্ম-আহবায়ক আকতার হোসেন, নাসির উদ্দিন নাসির, খোরশেদ আলম সোহেল, এইচ এম আবু জাফর, সোহেল রানা, শাহজাহান শাওন, সজীব মজুমদার, এবিএম ইজাজুল কবির রুয়েল, সাফি ইসলাম, রিয়াদ রহমান, জিহাদুল ইসলাম রঞ্জু, শরীফুল ইসলাম প্রধান, কাজী শামছুল হুদা, এনামুল হক এনাম, মোস্তাফিজুর রহমান, মাসুদুর রহমান মাসুদ, জসীমউদ্দিন, হাসানুর রহমান, মোস্তাফিজুর রহমান রুবেল, ফারুক আহমেদ, বায়েজিদ আহমেদ,মিয়া মোহাম্মদ রাসেল সহ আহ্বায়ক কমিটির সদস্য বৃন্দ, বিভিন্ন হলের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকবৃন্দ ।

জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসাইন শ্যামল বলেন,
‘ছাপ্পান্ন হাজার বর্গমাইলের বাংলাদেশে কোথাও আজ নিরাপদ পরিবেশ নেই।ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এর বাহিরে নয়।ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে আজ নিরাপদ পরিবেশ বিরাজ করছে না।সবার প্রতি উদাত্ত আহ্বান আর পেছনে ফিরে তাকানোর সময় নেই। ছাত্রদলের নেতৃত্বে আগামীতে সারাদেশের ছাত্রসমাজ ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে রাজপথে তীব্র আন্দোলন গড়ে তুলবে।’

ঢাবি ছাত্রদলের আহ্বায়ক মোঃ রাকিবুল ইসলাম রাকিব বলেন,”মুজিব হলে এক শিক্ষার্থীকে নির্যাতন এবং হল ছাড়া করেছে ছাত্রলীগ। প্রতিটি হলে সাধারণ শিক্ষার্থীদের উপর ছাত্রলীগ প্রতিনিয়ত অত্যাচার ও নির্যাতন চালাচ্ছে। কিন্তু বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন সবসময় নীরব ভূমিকা পালন করছে। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের নিরবতা ছাত্রলীগকে আরও বেপরোয়া হতে উৎসাহিত করছে।আমরা সাধারণ শিক্ষার্থীদের উপর হামলার ঘটনায় দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাচ্ছি। সেই সাথে ছাত্রদলের উপর হামলার ঘটনাগুলোরও সুষ্ঠু তদন্ত সাপেক্ষে দায়ীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি জানাই।”

 
  
%d bloggers like this: