আবু সায়েম:
কক্সবাজার উত্তর বনবিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা মোঃ আনোয়ার হোসেন সরকারের নির্দেশে স্পেশাল টিমের ওসি ও শহর রেঞ্জ কর্মকর্তা একেএম আতা এলাহী ও কক্সবাজার দক্ষিণ বনবিভাগের স্পেশাল টিমের ওসি ও সদর রেঞ্জ কর্মকর্তা সমীর রঞ্জন সাহাসহ একদল বনকর্মীদের নেতৃত্বে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে শহরের কালুর দোকান এলাকার মেসার্স শখের পাখি নামক একটি দোকান থেকে ৪ টি টিয়াপাখি ও ২ টি শিকারী বনমোরগ উদ্ধার করা হয়েছে।

বুধবার ৯ ফেব্রুয়ারী দুপুরে কক্সবাজার শহরের কালু দোকান এলাকার ‘শখের পাখি’ নামের একটি দোকান থেকে এসব পাখি ও মোরগ উদ্ধারে তথ্য জানিয়েছেন শহর রেঞ্জ কর্মকর্তা ও স্পেশাল টিমের ওসি একেএম আতা এলাহী।
তিনি জানান, শখের পাখি নামের দোকানের মালিক মো. শহীদুল ইসলাম গত ৪ বছর যাবত বন্য পাখি বিক্রি করে আসছিল। গোপনে খবর পেয়ে বুধবার দুপুরে বনবিভাগের বিশেষ টহলদল দলের ওসি (উত্তর ও দক্ষিণ) ওই দোকানে অভিযান চালিয়ে টিয়া পাখি ও শিকারী বন মোরগ উদ্ধার করা হয়।এসময় ওই দোকানদারকে সর্তক করা হয়।

এই বন মোরগ দিয়ে বনাঞ্চলে ফাঁদ পেতে বন মোরগ শিকার করে তা বাজারে বিক্রি হতো।
দুপুরে পাখি ও মোরগ অবমুক্ত করা হয় বলে জানান কক্সবাজার দক্ষিণ বনবিভাগের স্পেশাল টিমের ওসি সমীর রঞ্জন সাহা।
এসময় উপস্থিত ছিলেন, সাবেক বন সংরক্ষক (বন্য প্রাণী ও প্রকৃতি সংরক্ষণ অঞ্চল) তপন কুমার দে, কক্সবাজার উত্তর বনবিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা মোঃ আনোয়ার হোসেন সরকার, সহকারী বনসংরক্ষক মো. শহীদুল ইসলাম হাওলাদার (দক্ষিণ), সহকারী বনসংরক্ষক ড. প্রান্তোষ চন্দ্র রায় ( উত্তর),বিশেষ টহলদল দলের ওসি সমীর রঞ্জন সাহা,বাঘখালী রেঞ্জ কর্মকর্তা সরওয়ার জাহানসহ বন কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ।

 
  
%d bloggers like this: