চট্টগ্রাম প্রতিনিধি॥

চট্টগ্রামের সাতকানিয়া উপজেলার খাগরিয়া ইউনিয়নে নির্বাচনের আগের দিন (৬ ফ্রেরুয়ারি) রাত সাড়ে ১০টায় দক্ষিণ জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক পার্থ সারথী চৌধুরীসহ ৫ যুবলীগের নেতাকর্মীকে আটক করে ব্যাপক মারধর করেছে স্বতন্ত্র প্রার্থী জসিম উদ্দিনের সমর্থকরা।

এসময় তাদের বহনকারী প্রাইভেটকারটিও ভাংচুর করে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তাদের উদ্ধার করেছে। এসময় স্থানীয়রা অস্ত্রসহ তাদের আটক করেছেন বলে পুলিশকে জানান।

রবিবার রাত সাড়ে ১০টায় দক্ষিণ জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক পার্থ সারথী চৌধুরী আরো ৪ জনকে নিয়ে একটি কারে করে ৬ নম্বর ওয়ার্ডের মাইজপাড়া ঢুকার সময় স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী জসিম উদ্দিনের অনুসারীরা তাদের গাড়িটি তল্লাশী করে। ভোটের আগের দিন বহিরাগত ঠেকাতে স্থানীয়রা এলাকায় এলাকায় পাহারা বসিয়েছেন।

এসময় স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী জসিম উদ্দিন ও তার অনুসারীরা তাদের অবরুদ্ধ করে মেরে রক্তাক্ত করে।
এক পর্যায়ে খাগরিয়া ইউনিয়নের স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী জসিম উদ্দিন গিয়ে পার্থ সারথী চৌধুরীসহ অন্যান্যদের উদ্ধার করে তার বাসায় নিয়ে যায়।

সেখান থেকে পুলিশকে খবর দেয়া হয়। পুলিশ এসে দেখতে পান পার্থ সারথী চৌধুরীকে যে বাসায় বসিয়ে রাখা হয়েছে তার পাশে ড্রাইনিং টেবিলের উপর একটি পুরনো আগ্নেয়াস্ত্র রয়েছে। পার্থ সারথী চৌধুরী বিধ্বস্ত অবস্থায় যেখানে বসা তার পাশে ড্রাইনিং টেবিলের উপর একটি পুরনো আগ্নেয়াস্ত্র এবং পার্থ সারথী চৌধুরী পুলিশের সাথে কথা বলছেন এমন একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ছে।

স্থানীয়রা জানান, আটকের সময় তাদের কারে এই আগ্নেয়াস্ত্র পাওয়া গেছে।

৭ ফ্রেরুয়ারি সাতকানিয়ার ইউপি নির্বাচনে খাগরিয়া ইউনিয়নের স্ট্রাইকিং ফোর্সের দায়িত্বপ্রাপ্ত পুলিশ কর্মকর্তা লোহাগাড়া থানা ওসি (তদন্ত) ওবায়দুল ইসলাম জানান, আমরা খাগরিয়া থেকে
দক্ষিণ জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক পার্থ সারথী চৌধুরীসহ ৫ জনকে উদ্ধার করেছি। তাদেরকে মারধর করা হয়েছে।

পার্থ সারথী চৌধুরীকে যে রুমে বসিয়ে রাখা হয়েছে তার পাশে একটি অস্ত্র ছিল। এটি কি তাদের সাথে ছিল নাকি কেউ দিয়েছে এই ব্যাপারে এখন আমরা এখন কিছু বলতে পারছিনা।

 
  
%d bloggers like this: