বিশেষ প্রতিবেদক:

কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলার পূর্ব বড় ভেওলা নয়াপাড়া গ্রামে ঘুমন্ত অবস্থায় আগুনে দগ্ধ হয়ে দিলসাবা বেগম (৫৫) নামের এক বৃদ্ধার মৃত্যু হয়েছে। আজ ৪ ফেব্রুয়ারী শুক্রবার ভোররাত ৪ টার সময় এ ঘটনা ঘটেছে। নিহত দিলসাবা বেগম (৫৫) পূর্ব বড় ভেওলা ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ড বুড়ির পাড়া গ্রামের মৃত ফজল করিমের মেয়ে। তিনি ভাইয়ের বাড়ীতে বেড়াতে এতে অগ্বিদগ্ধ হয়ে মারা যান।
আগুনে দুটি বসতবাড়ির সমস্ত মালামাল পুড়ে ছাঁই হয়ে গেছে। এতে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ ১৫ লাখ টাকা।
চকরিয়া পূর্ব বড় ভেওলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ফারহানা আফরিন মুন্না আগুনে নারীর মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
তিনি বলেন, ৪ ফেব্রুয়ারী শুক্রবার ভোর চারটার সময় ৯ নং ওয়ার্ডের নয়াপড়া গ্রামের জনৈক হেফাজুতুল করিমের চৌচালা টিনের ছাউনির বসতঘরে বৈদ্যুতিক সর্ট সার্কিট থেকে আগুন লাগে। মুহুর্তে আগুন পাশ্ববর্তী মৃত নুরুল হুদার বসত বাড়ীতেও ছড়িয়ে পড়ে। বাড়ীর ভিতর থাকা মৃত নুরুল হুদার ছেলে হেফাজুতুল করিম (৩৩), মোহাম্মদ হানিফ (২৮) বাড়ী থেকে বের হতে পারলেও তাদের বাড়ীতে বেড়াতে আসা ফুফু দিলসাবা বেগম অসুস্থতার কারণে ঘর হতে বের হতে পারেনি। এতে দগ্ধ হয়ে ঘরের ভিতরই মারা যান তিনি। এসময় আগুনে দুটি বাড়ীর মালামালসহ সব কিছু পুড়ে ছাঁই হয়ে যায়।
তিনি আরও জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পরিদর্শন করেছি। আমার ব্যক্তিগত পক্ষ থেকে ক্ষতিগ্রস্তদের আর্থিক সহায়তা দেয়া হয়েছে।
নিহতের ভাতিজা হেফাজতুল করিম বলেন, তার মা অসুস্থ হয়ে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। মা অসুস্থ থাকায় তাদের ফুফু দিলসাবা বেগমকে বাড়ীতে আনা হয়েছিল। তিনি একটি কক্ষে থাকতেন। তিনিও অসুস্থ থাকার কারণে অগ্নিকান্ডের সময় বাড়ী থেকে বের হতে পারেনি।
জানা গেছে, সকালে চকরিয়া থানা পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।
পারিবারিক ও ফায়ার সার্ভিসের তথ্য মতে, আগুনে দুটি বসতবাড়ীর ক্ষয়ক্ষতির পরিমান পনের লক্ষ টাকা।

 
  
%d bloggers like this: