আতিকুর রহমান মানিক:

কক্সবাজারে জেলা প্রশাসনের কর্মচারীদের বিরুদ্ধে গণপূর্ত বিভাগের জমি দখল করে দোকান ও বাড়ি নিমার্ণের অভিযোগ উঠেছে। গত প্রায় দুই যুগ ধরে এসব জমিতে দোকান নির্মানপূর্বক ভাড়া দিয়ে বিপুল অর্থ হাতিয়ে নিয়েছেন জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণীর কর্মচারীদের একটি সিন্ডিকেট।
এমনি অভিযোগের প্রেক্ষিতে দুর্নীতি দমন কমিশন, সমন্বিত জেলা কার্যালয় কক্সবাজার-এর সহকারী পরিচালক মো. রিয়াজ উদ্দিনের নেতৃত্বে সোমবার (৩১ জানুয়ারি) একটি এনফোর্সমেন্ট অভিযান পরিচালিত হয়।

অভিযানে দুদক টিম দেখতে পায়, কক্সবাজার জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের ৩য় ও ৪র্থ শ্রেণীর কমচারীরা ২টি সমিতির নামে কক্সবাজার বিভাগীয় বন কর্মকর্তার কার্যালয় ও পুলিশ সুপারের কার্যালয়ের মাঝামাঝি এলাকায় গণপূর্ত বিভাগের প্রায় ৩০ শতাংশ মূল্যবান জমি দখল করে দোকান ও ঘর নির্মাণ করেছেন।
এ সময় দোকান মালিকদের জিজ্ঞাসাবাদ করলে তারা জানায়, সমিতির সভাপতি ও সেক্রেটারির সাথে মৌখিক/লিখিত চুক্তির মাধ্যমে তারা মাসিক ভাড়া দিয়ে দোকান পরিচালনা করছেন। এ বিষয়ে সমিতির সভাপতি ও সেক্রেটারি দুদককে জানান, তারা উক্ত জমি বরাদ্দের জন্য প্রায় ২০ বছর আগে আবেদন করেছেন। যা মন্ত্রণালয়ে পেন্ডিং অবস্থায় আছে। তাই তারা উক্ত জমি দখলে আছেন।

উল্লেখ্য, ৩য় শ্রেণীর কর্মচারী সমিতির সভাপতি ও সেক্রেটারি লিখিতভাবে জানান যে, গণপূর্ত বিভাগ চাইলে তারা জমিরদখল ছেড়ে দিবেন। তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশসহ কমিশন বরাবরে এনফোর্স টীম শীঘ্রই বিস্তারিত প্রতিবেদন দাখিল করবে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।

 
  
%d bloggers like this: