আবু সায়েম: চকরিয়া উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) রাহাত উজ জামানের সার্বিক সহযোগিতায় এবং কক্সবাজার উত্তর বনবিভাগের সহকারী বনসংরক্ষক ডঃ প্রান্তোষ চন্দ্র রায়ের নেতৃত্বে স্পেশাল টিমের ওসি একেএম আতা এলাহী ও একদল বনকর্মীদের সহযোগিতায় যৌথ অভিযান চালিয়ে ফাঁসিয়াখালী রেঞ্জের নলবিলা বিটস্থ কৈয়ারবিল এলাকায় অবৈধভাবে স্থাপিত ২টি করাতকল উচ্ছেদ করা হয়েছে।

৩১ জানুয়ারি ( সোমবার ) চকরিয়া উপজেলার নলবিলা বিটস্থ কৈয়ারবিল এলাকায় চকরিয়া উপজেলার সহকারী কমিশনার ( ভূমি) রাহাত উজ জামানের সার্বিক সহযোগিতায় সহকারী বনসংরক্ষক ( সদর) ডঃ প্রান্তোষ চন্দ্র রায়ের নেতৃত্বে স্পেশাল টিমের ওসি একেএম আতা এলাহী ও একদল বনকর্মীদের সহযোগিতায় অভিযান পরিচালনা করে ২ টি অবৈধভাবে স্থাপিত করাতকল উচ্ছেদ করা হয়।
স্পেশাল টিমের ওসি ও শহর রেঞ্জ কর্মকর্তা একেএম আতা এলাহী বলেন,
নিয়মিত অভিযানের অংশ হিসেবে কক্সবাজার উত্তর বনবিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা মোঃ আনোয়ার হোসেন সরকারের নির্দেশে চকরিয়া উপজেলার সহকারী কমিশনার ( ভূমি) ‘র সার্বিক সহযোগিতায় বনবিভাগ এবং উপজেলা প্রশাসন যৌথ অভিযান পরিচালনা করে ফাঁসিয়াখালী রেঞ্জাধীন চকরিয়া উপজেলার নলবিলা বিটস্থ কৈয়ারবিল এলাকায় ২ টি অবৈধ করাতকল উচ্ছেদ করা হয়। করাতকল উচ্ছেদ করে সরঞ্জামাদি জব্দ করে ফাঁসিয়াখালী রেঞ্জ হেফাজতে নিয়ে আসা হয়েছে। অবৈধ করাতকল স্থাপনের সাথে জড়িত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে বন আইনে পৃথক পৃথক মামলা দায়ের করা হবে।

কক্সবাজার উত্তর বনবিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা মোঃ আনোয়ার হোসেন সরকার বলেন, চকরিয়া উপজেলার নলবিলা বিটস্থ কৈয়ারবিল এলাকায় অবৈধ করাতকল স্থাপনের খবর পেয়ে উপজেলা প্রশাসনের সহযোগিতায় যৌথ অভিযানে ২ টি অবৈধ করাতকল উচ্ছেদ করা হয়েছে। অবৈধ করাতকল স্থাপন করে বন উজাড় করলে যতো বড় প্রভাবশালী হোক না কেন তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। বনজসম্পদ রক্ষা, সরকারি বনভূমি উদ্ধার, সুরক্ষা সহ সামগ্রিক কার্যাবলি বাস্তবায়নে আমরা সজাগও সতর্ক রয়েছি।বন অপরাধ দমনে তথ্য দিয়ে সহযোগিতা করার আহ্বান জানান তিনি

 
  
%d bloggers like this: