প্রেস বিজ্ঞপ্তি:

জেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি জহিরুল ইসলাম সিকদারের মৃত্যুতে কুতুবদিয়া উপজেলা শ্রমিক লীগের পক্ষ থেকে গভীর শোক প্রকাশ করা হয়েছে।

উপজেলা শ্রমিক লীগের পক্ষ থেকে আহ্বায়ক নূরুল ইসলাম মেম্বার ও সদস্য সচিব মোজাম্মেল হক এই শোক প্রকাশ করেছেন।

নেতৃবৃন্দ এক বিবৃতিতে বলেন, জহিরুল ইসলাম সিকদার শ্রমিকদের অধিকার আদায়ের একজন অগ্রণি নেতা ছিলেন। তিনি শ্রমিকদের অধিকার আদায়ের জন্য তার জীবনের বহু সময় ব্যয় করেছেন। তিনি শোষণকারীদের রক্তচক্ষু উপেক্ষা করে শেষ পর্যন্ত অধিকার আদায় করে ছেড়েছেন।

অন্যদিকে দলের নেতাকর্মীদের জন্য জহিরুল ইসলাম সিকদার ছিলেন বটবৃক্ষ। তার ছায়াতলে শ্রমিক লীগের নেতাকর্মীরা সব সময় স্থান পেয়েছেন। তার মাঝে যে নেতৃত্ব গুণ ছিলো তা খুব বেশি নেতার মাঝে নেই। তিনি নেতাকর্মীদের মনের ব্যাথা সমস্যার কথা এক নিমিষে দেখলে বুঝে ফেলতেন। ব্যাথা ও সমস্যা দূর করেই ছাড়তেন আপামর মেহনতি মানুষের প্রাণের নেতা জহিরুল ইসলাম সিকদার।

কুতুবদিয়া উপজেলা শ্রমিক লীগের নেতৃবৃন্দ বলেন, জহিরুল ইসলাম সিকদারের মতো গুণী নেতা খুব সহজে সৃষ্টি হয় না। বহু ত্যাগ আর পরিশ্রমের মাধ্যমে জহিরুল ইসলাম সিকদার তৈরি হয়েছিলো। এমন নেতার শূন্যতা কখনো পুরণ হবে না। তার মৃত্যুতে অপুরণীয় ক্ষতি হয়ে গেলো।

এই নির্মম হত্যার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে নেতৃবৃন্দ বলেন, জহিরুল ইসলাম সিকদারের খুনিরা দেশের শত্রু, আওয়ামী লীগের শত্রু। তাদের দ্রুত সময়ের মধ্যে গ্রেফতার করে কঠোর শাস্তির আওতায় আনতে হবে। না হলে আমাদের আন্দোলন থামবে না।

জহিরুল ইসলাম সিকদারের মৃত্যুতে আরো শোক প্রকাশ করেন যুগ্ম আহ্বায়ক আবদুল মান্নান ও মোস্তাক আহমদ, সদস্য মোঃ রমিজ, মাহিন চৌধুরী খোকন, সলিল কুমার দেওয়ান, শাহজাহানসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।