আব্দুস সালাম,টেকনাফ(কক্সবাজার):
কক্সবাজারের টেকনাফের হ্নীলায় স্বশস্ত্র ছিনতাইকারী চক্রের হাতে গুলিবিদ্ধ হয়ে হাবিব উল্লাহ(২৩) নামে এক চালক
চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয়েছে। এই মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে হাবিব উল্লাহর পরিবারে ও এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

পারিবারিক সুত্রে জানা যায়,বৃহস্পতিবার (৪ আগষ্ট) সকালে চট্রগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় টেকনাফের হ্নীলা ইউনিয়ের পশ্চিম লেদা নুরালী পাড়ার মোহাম্মদ হোছনের ছেলে চালক হাবিব উল্লাহ (২৩) মৃত্যু বরণ করেন।
গত ১ আগষ্ট রাতে টেকনাফ উপজেলার হ্নীলা ইউনিয়নের পশ্চিম লেদা নুরালী পাড়ার মোহাম্মদ হোছনের ছেলে চালক হাবিব উল্লাহ বাড়ি থেকে বের হয়ে গাড়ির শ্রমিকদেরকে বেতনের টাকা দিতে দোকানে যাচ্ছিল। এসময় একই এলাকার মো. নুরের ছেলে ছৈয়দ নুর,মকতুল হোছনের ছেলে আক্তার হোছন, মো. হাসিমের ছেলে মো. রাসেল, আবুল হোছনের ছেলে আব্দুর রহমান, পূর্ব লেদার আবুল কালামের ছেলে মো. নাসিম, মো. জমিল প্রকাশ টুনুর ছেলে রবিউল হাসান, আবুল হোছনের ছেলে আব্দুল আঊয়াল ওরফে গুরা পুতিয়া, রোহিঙ্গা কবির হোছনের ছেলে বেলাল হোছন এবং রোহিঙ্গা নুরুল হক প্রকাশ লাল বুইজ্জার ছেলে জুনাঈদ ওরফে লাম্বাইয়াসহ স্বশস্ত্র একটি গ্রুপ তার পকেটে থাকা টাকা ও মুঠোফোন হাতিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করেন। এসময় সে বাঁধা দিয়ে তর্কে জড়িয়ে পড়ে। এক পর্যায়ে ডাকাত বলে চিৎকার দিলে সামনে থেকে গুলিবর্ষণ করে দূবৃর্ত্তরা পাহাড়ের দিকে পালিয়ে যায়। তাকে দ্রুত উদ্ধার করে লেদা আইএমও হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়ার পর গভীর রাতে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে রেফার করা হয়। সেখানে অবস্থার উন্নতি না হওয়ায় গুলিবিদ্ধ হাবিব উল্লাহকে চট্রগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করা হয়েছে। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ সকালে সেখানে তার মৃত্যু ঘটে। আইনী প্রক্রিয়া শেষে নিহতের মৃতদেহ বাড়িতে আনার প্রস্তুতি চলছে।

হ্নীলা ইউপি চেয়ারম্যান রাশেদ মাহমুদ আলী জানান, হ্নীলা ইউনিয়নের প্রত্যন্ত এলাকার অবৈধ অস্ত্রধারীদের আইনের আওতায় এনে শান্তিপূর্ণ পরিবেশ ফিরিয়ে আনা হবে।

টেকনাফ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. হাফিজুর রহমান জানান,এ ঘটনার বিষয়ে অভিযোগে পেলে তদন্তপূর্বক আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

 
  
%d bloggers like this: