চকরিয়া (কক্সবাজার) প্রতিনিধি :
কক্সবাজারের চকরিয়ায় ডুলাহাজারা ইউপি সচিব হুমায়ুন কবির ও গ্রাম পুলিশকে সরকারি কাজে বাঁধা এবং মারধরের ঘটনায় ওই ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য রমজান আলীকে তার স্বীয় পদ থেকে সাময়িক বহিষ্কার করেছে স্থানীয় সরকার বিভাগ।
স্থানীয় সরকার,পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগ এক প্রজ্ঞাপনে চকরিয়া উপজেলার ডুলাহাজারা ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য রমজান আলীকে তার সদস্য পদ থেকে গত ২৮ জুলাই সাময়িক বহিষ্কার করা হয়।

স্থানীয় সরকার,পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সহকারী সচিব জেসমীন প্রধান স্বাক্ষরিত প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, ডুলাহাজারা ৪নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য রমজান আলীর বিরুদ্ধে বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত কর্তৃক ১৪৩/৪৪৮/১৮৬/৩৩২/৩৫৩/৩০৭/৪২৭/৫০৬ ধারায় চকরিয়া থানায় দায়েরকৃত জি আর মামলা নং-২১/২০২২ তারিখ-২০ জানুয়ারী এর অভিযোগপত্র বিজ্ঞ আদালত কর্তৃক গৃহীত হয়েছে এবং জেলা প্রশাসক, কক্সবাজার বর্ণিত ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে স্থানীয় সরকার (ইউনিয়ন পরিষদ) আইন- ২০০৯ মোতাবেক ব্যবস্থা গ্রহণ করতে সুপারিশ করেছেন।
ইউপি সদস্য রমজান আলীর বিরুদ্ধে বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত কর্তৃক দায়েরকৃত মামলায় বিজ্ঞ আদালত কর্তৃক গৃহীত হওয়ায় তাঁর দ্বারা ইউনিয়ন পরিষদে ক্ষমতা প্রয়োগ প্রশাসনিক দৃষ্টিকোণে সমীচীন নয় মর্মে সরকার মনে করেন। সেহেতু, ডুলাহাজারা ৪নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য রমজান আলী কর্তৃক তার সংঘটিত কার্যক্রমটি জনস্বার্থ পরিপন্থী হওয়ায় স্থানীয় সরকার আইন ২০০৯ এর ধারা ৩৪(১) অনুযায়ী ইউপি সদস্য রমজান আলীকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়।

উল্লেখ্য, চলতি বছরের (১৯জানুয়ারি) দুপুরের দিকে ডুলাহাজারা ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে অফিস চলাকালীন সময় তুচ্ছ ঘটনার জেরে ইউপি সদস্য রমজান আলীর নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী হামলা চালিয়ে ইউপি সচিব, গ্রাম পুলিশ ও উদ্যোক্তাসহ ৫ জনকে পিটিয়ে জখম করা হয়। পরে এ ঘটনায়
জি আর মামলা নং- ২১/২০২২ দায়ের করা হয়েছিল। তৎপ্রেক্ষিতে ইউপি সদস্য রমজান আলীকে পুলিশ গ্রেপ্তার করে বিজ্ঞ আদালত প্রেরণ করেন। এনিয়ে ইউপি সদস্য রমজান আলী কর্তৃক সংঘটিত কার্যক্রমটি জনস্বার্থ পরিপন্থী হওয়ায় স্থানীয় সরকার আইন অনুযায়ী মেম্বার রমজানকে গত ২৮ জুলাই ২২ ইং তারিখ থেকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়েছে।

 
  
%d bloggers like this: