প্রেস বিজ্ঞপ্তি:

শেখ হাসিনার অধীনে নির্বাচনে না যাওয়ার সিদ্ধান্তে অটল রয়েছে বিএনপি। কক্সবাজারে এসে সে ঘোষণা আবারো দিলেন বিএনপির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবের রহমান শামীম।

ভোলায় পুলিশের গুলিতে নিহত স্বেচ্ছাসেবক দল নেতা নিহতের প্রতিবাদে মঙ্গলবার কক্সবাজার জেলা বিএনপি আয়োজিত বিক্ষোভ সমাবেশের প্রধান অতিথির বক্তব্যে এই ঘোষণা দিয়েছেন বিএনপির এই সিনিয়র নেতা।

সরকারের বিরুদ্ধে বিএনপির উপর জুলুম-নির্যাতন ও গুম-খুনের অভিযোগ তুলে মাহবুবের রহমান শামীম বলেছেন, গত ১৪’ বছরে এই সরকার অনেককে গুম করেছে, খুন করেছে। ন্যাক্কারজনক অনেক ঘটনা করেছে। বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব সালাহ উদ্দীন আহমদকে গুম করে মেরে ফেলতে চেয়েছে।

এই সরকারকে অবৈধ ও অস্বাভাবিক সরকার দাবি করে তিনি বলেন, এই সরকার আসার পর থেকে বিএনপির উপর জুলুম-নির্যাতন চালাচ্ছে। কিন্তু দমে যাইনি বিএনপি আর কখনো দমে যাবে না।

বিক্ষোভ সমাবেশে প্রধান বক্তার বক্তব্যে বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির মৎস্যজীবি বিষয়ক সম্পাদক ও সাবেক সংসদ সদস্য লুৎফুর রহমান কাজল বলেন,
এই অবৈধ সরকার জুলুম-নির্যাতন আর লুটপাটের মাধ্যমে দেশকে পঙ্গু করে দিয়েছে। তাদেরকে আর ছাড় দেয়া হবে না। ২০২৩ হবে শেখ হাসিনার পতন ও জনগণের মুক্তির বছর।

জেলা বিএনপির সভাপতি ও সাবেক সংসদ সদস্য শাহজাহান চৌধুরীর সভাপতিত্বে, প্রচার সম্পাদক অধ্যাপক আকতার ও সাবেক ছাত্রদল নেতা সরওয়ার রুমনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত বিক্ষোভ সমাবেশে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, জেলা বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি এটিএম নূরুল বশর চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক এড. শামীম আরা স্বপ্না, সহ-সভাপতি ও পৌর বিএনপির সভাপতি রফিকুল হুদা চৌধুরী, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক ও জেলা শ্রমিকদলের সভাপতি রফিকুল ইসলাম, পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবুল কাশেম, মহেশখালী উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আমিনুল হক চৌধুরী, সদর উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ছৈয়দ নূর, টেকনাফ উপজেলা বিএনপির সভাপতি এড. হাসান সিদ্দিকী, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি অধ্যাপক আজিজুর রহমান, জেলা কৃষক দলের আহ্বায়ক আশরাফুল হুদা ছিদ্দিকী জামসেদ, পৌর বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক গিয়াস উদ্দীন, জেলা যুবদলের সভাপতি এড. সৈয়দ আহমদ উজ্জল, সাধারন সম্পাদক জিসান উদ্দীন জিসান, জেলা স্বেচ্ছাসেক দলের সাধারণ সম্পাদক এড. মোঃ ইউনুছ, মৎস্যজীবি দলের আহ্বায়ক সালামত উল্লাহ বাবুল, জেলা যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক আমীর আলী, জেলা ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি রাসেদুল হক রাসেল, সাধারণ সম্পাদক এড. মনির উদ্দীন মনির, জেলা কৃষক দলের সদস্য সচিব শরীফ উদ্দীন বাবুল, যুবদল নেতা ফরিদুল আলম, পৌর বিএনপির ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক রাসেদুল হক, স্বেচ্ছাসেক দল নেতা হাজী আবদুর রহিম, পৌর যু্বদলের আহ্বায়ক, আজিজুল হক সোহেল জেলা ছাত্রদলের সভাপতি শাহাদাত হোসেন রিপন, সাধারণ সম্পাদক ফাহিমুর রহমান ফাহিম, সিনিয়র সহ-সভাপতি সাইফুর রহমান নয়ন, যুগ্ম সম্পাদক মিজানুল আলম, শহর ছাত্রদলের আহ্বায়ক হুমায়ুন কবির হিমু, সদর উপজেলা ছাত্রদলের আহ্বায়ক রাসেদুল করিম রাসেদ, শহর ছাত্রদলের সদস্য সচিব ইনজামামুল হক।

সমাবেশের শুরুতে কোরআন তেলোয়াত করেন মাওলানা দারুস্সালাম।

এই বিক্ষোভ সমাবেশে বিএনপি, যুবদল, ছাত্রদলসহ অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের বিপুল নেতাকর্মীরা অংশ নেন।

 
  
%d bloggers like this: