মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

স্ত্রীকে হত্যার ঘটনায় স্বামীকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ড দিয়েছে আদালত। রায়ে একইসাথে ১ লক্ষ টাকা অর্থদন্ড, অর্থদন্ড অনাদায়ে আসামীকে আরো ৬ মাস বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করা হয়েছে।

গত ২৮ জুলাই নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-১ এর বিজ্ঞ বিচারক মোহাম্মদ মোসলেহ্ উদ্দিন এ রায় প্রদান করেন।

দন্ডিত আসামী নোয়াখালী জেলার কবিরহাট উপজেলার বাটিয়া ৩ নং ওয়ার্ডের নুরুল ইসলামের পুত্র সালাহ উদ্দিন (৩০)। রায় ঘোষণার সময় দন্ডিত আসামী আদালতের কাঠগড়ায় উপস্থিত ছিলেন।

রাষ্ট্র পক্ষে মামলাটি পরিচালনা করেন নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-১ এর স্পেশাল পিপি অ্যাডভোকেট বদিউল আলম সিকদার। আসামিপক্ষে মামলা পরিচালনা করেন অ্যাডভোকেট মোস্তাক আহমেদ চৌধুরী।

ঘটনার সংক্ষিপ্ত বিবরণ :
২০১৭ সালের ১১ অক্টোবর কক্সবাজার শহরের কলাতলী হোটেল মোটেল জোন এলাকার আরএম গেস্ট হাউজের ২০১ নম্বর কক্ষ থেকে নোয়াখালীর বসুর হাটের বাসিন্দা মিনা সরকার (২৬) নামক এক মহিলার গলায় ফাঁস লাগানো লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। পুলিশ জানতে পারে, সালাহউদ্দিন ও মিনা সরকার স্বামী-স্ত্রী এবং কক্সবাজারে বেড়াতে এসে এই হোটেলে উঠেন। এ ঘটনায় ১২ অক্টোবর কক্সবাজার সদর মডেল থানার এসআই দীপক কুমার সিংহ বাদি হয়ে একটি মামলা দায়ের করেন। যার মামলা নম্বর : নারী ৪৩৫/২০১৮ ইংরেজি। মামলার একমাত্র আসামি করা হয় স্বামী সালাহ উদ্দিনকে।

বিচার ও রায় :
২০১৮ সালের ২২ মে তদন্তকারী কর্মকর্তা (আইও) আদালতে মামলার অভিযোগপত্র (চার্জশীট) দাখিল করেন। মামলাটি বিচারের জন্য চার্জ (অভিযোগ) গঠন করা হয়। মামলায় সাক্ষীদের সাক্ষ্য গ্রহণ, আসামী পক্ষে জেরা, আলামত প্রদর্শন, সুরতহাল প্রতিবেদন পর্যালোচনা, ময়নাতদন্ত রিপোর্ট যাচাই, যুক্তিতর্ক সহ সকল বিচারিক প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে একমাত্র আসামী সালাহ উদ্দিনকে হোটেলে এনে স্ত্রী হত্যার দায়ে দোষী সাব্যস্থ করে বিজ্ঞ বিচারক উপরোক্ত সাজা প্রদান করেন।

 
  
%d bloggers like this: