ভবিষ্যতে রবীন্দ্র ও নজরুল সঙ্গীত না গাওয়াসহ বিতর্কিত কর্মকাণ্ড না করার প্রতিশ্রুতি দিয়ে মুচলেকা দিয়েছেন হিরো আলম। ডিবি সাইবার ইউনিটের কাছে মুচলেকা দিয়ে হিরো আলম জানিয়েছেন, জীবনেও আর বিকৃত করে নজরুল ও রবীন্দ্র সঙ্গীত করবেন না।

বুধবার (২৭ জুলাই) সকালে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা কার্যালয়ে হাজির হয়ে এই মুচলেকা দেন তিনি। ডিএমপির গোয়েন্দা বিভাগের প্রধান হারুন অর রশীদ সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে বলেন, হিরো আলমের বিরুদ্ধে ডিবি সাইবারে অনেকগুলো অভিযোগ জমা হয়েছিল। সেগুলোর বিষয়ে আমরা তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছি। তাকে ডাকা হয়েছিল। সে মুচলেকা দিয়েছে, জীবনেও আর নজরুল ও রবীন্দ্র সঙ্গীত বিকৃত করে গাইবেন না, এ ধরনের ভিডিও বানাবে না।

হারুন অর রশীদ আরও বলেন, আমাদের বাঙ্গালি সংস্কৃতির প্রাণ নজরুল ও রবীন্দ্র সঙ্গীত। আমরা গান শুনি; নজরুল, রবীন্দ্র শুনি, এইসব গানের সে সব কিছু পরিবর্তন করেছে। এসব কেন করে জানতে চাইলে সে জানিয়েছে, সে জীবনেও আর এমন গান করবে না, সে মুচলেকা দিয়েছে।

ডিএমপির গোয়েন্দা বিভাগের প্রধান হারুন অর রশীদ বলেন, পরবর্তীতে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। সে মিউজিক ভিডিও ও নাটকে পুলিশের বিভিন্ন ডিআইজি এসপির পোশাক পরে কনস্টেবলের অভিনয় করছে। এসব পোশাক পরতে পূর্ব অনুমতি নেয়া প্রয়োজন, কিন্তু সে নেয় না। এমনকি হিরো আলম চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সদস্যও না। সে কনস্টেবলের ড্রেস পরে বিভিন্ন পদমর্যাদার নামে অভিনয় করছে, সে কাউকে জানায় না, তাকে নিয়ে আর কী বলবো!

পোশাকের বিষয়েও হিরো আলম মুচলেকা দিয়েছেন বলে জানান হারুন অর রশীদ। হিরো আলম মুচলেকা দিয়েছেন; তিনি এ ধরনের কোনো কাজ বা ভিডিও আর করবেন না বলেও জানান ডিএমপির গোয়েন্দা বিভাগের প্রধান।

 
  
%d bloggers like this: