পেকুয়া সংবাদদাতা :

কক্সবাজারের পেকুয়ায় হত্যা, ডাকাতি, ধর্ষণ, অস্ত্র, পুলিশের উপর হামলা, হত্যাচেষ্টা ও বন মামলাসহ ৩৪ মামলার আসামী জাফর আলমের রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে।

সোমবার (২৫ জুলাই) সন্ধ্যায় বারবাকিয়া ইউপির পাহাড়িয়াখালীস্থ জনখোলার ঝুম এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

তিনি একই এলাকার মৃত নজির আহমদের ছেলে ও কথিত বনের রাজাখ্যাত জাহাঙ্গীর আলমের পিতা।

সূত্রে জানা যায়, জাফর আলমের বিরুদ্ধে চাঞ্চল্যকর সালমা, নিরহ নেজাম উদ্দিনকে হত্যা, বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র আনছার হত্যাচেষ্টা, পুলিশের উপর হামলা, অস্ত্র উদ্ধার মামলা ও বন মামলাসহ ৩৪টির অধিক মামলা চলমান রয়েছে। সদ্য সালমা হত্যা মামলায় কারাভোগ করে বের হয়েছেন।

এছাড়াও তার বড় ছেলে জাহাঙ্গীর আলম প্রকাশ বনের রাজা জাহাঙ্গীর অস্ত্র আইনে বর্তমানে জেলে থাকলেও বেশ কয়েকটি হত্যা, হত্যাচেষ্টা ও বন মামলার আসামীর তালিকায় রয়েছেন। ছোট ছেলে আলমগীরও সদ্য দুইটি হত্যা মামলায় জেলে রয়েছে। এছাড়াও তার পরিবারের মহিলা ও পুরুষ সদস্যদের বিরুদ্ধের বেশ কয়েকটি মামলা চলমান রয়েছে।

জাফর আলমের পরিবারের দাবী, মামলার হাজিরা দিয়ে আসার পথে সন্ধ্যায় জনখোলার ঝুম এলাকায় প্রতিপক্ষের লোকজন তাকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে।

তবে স্থানীয়দের দাবী, জনখোলার ঝুম এলাকায় কোন রকমের মারামারির ঘটনা ঘটেনি। প্রতিপক্ষের লোকজনকে মিথ্যাভাবে আসামী করতে হত্যার মত ঘটনা সাঁজানো হচ্ছে।

পেকুয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) তাজ উদ্দিন বলেন,  ময়নাতদন্তের রিপোর্ট না পাওয়া পর্যন্ত হত্যা নাকি স্বাভাবিক মৃত্যু তা বলা যাচ্ছেনা।

 
  
%d bloggers like this: