নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
এলাকার অপরাধীচক্রের বিরুদ্ধে অবস্থান ও সালিশ বিচারে ন্যায়ের পক্ষে থাকার কারণে অপরাধীচক্রের রোষানলে পড়েছেন রামু উপজেলার কচ্ছপিয়ার ৬ নম্বর ওয়ার্ডের ফাক্রিকাটার বাসিন্দা মোহাম্মদ তৌহিদুল ইসলাম (২৬)। ইতোমধ্যে নানামুখী ষড়যন্ত্র, অপপ্রচার শুরু করেছে প্রভাবশালী ও মাদক কারবারিদের সিন্ডিকেট। নিজের জীবন ও সম্মানের নিরাপত্তা চেয়েছেন তিনি।
গত ২৫ জুলাই গণমাধ্যমকে তৌহিদুল ইসলাম বলেন, এলাকার মানুষ আমাকে বিশ্বাস করে, ভালোবাসে। তাই তাদের যেকোন বিপদাপদের কথা আমাকে বলে। শালিস-বিচারে ডাকে।
আমিও বিপদগ্রস্তদের পাশে থাকতে সাধ্যমত চেষ্টা করি।
তিনি বলেন, মাদক কারবারিসহ অপরাধীদের বিরুদ্ধে আমার অবস্থান স্পষ্ট। সে কারণে প্রশাসনকে বানোয়াট ও বিভ্রান্তিকর তথ্য দিয়ে করে বিভিন্নভাবে আমাকে ফাঁসানোর চেষ্টা করছে কুচক্রিমহল।
তৌহিদুল ইসলাম বলেন, মাদক নির্মূলে এলাকায় যুবকদের একত্রিত করেছি। ইয়াবা সিন্ডিকেটের বিরুদ্ধে সামাজিকভাবে সামাজিক আন্দোলন শুরু করেছি। তাতে ক্ষুব্দ অপরাধী চক্র উল্টো আমাকে ফাঁসাতে উঠেপড়ে লেগেছে। আমাকে বিভিন্নভাবে হেনস্তা করার চেষ্টা করছে।
আমার বিরুদ্ধে কারা ষড়যন্ত্র করছে; মিথ্যা অভিযোগ দিচ্ছে, তা সঠিক তদন্তের মাধ্যমে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করতে জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপারসহ সংশ্লিষ্টদের আহবান করছি।
আমি চ্যালেঞ্জ করে বলছি, নূন্যতম অনৈতিক কাজে আমি জড়িত নই। কোন অপরাধে আমার সম্পৃক্ততার প্রমাণ পেলে সর্বোচ্চ শাস্তি আমি মেনে নেব।
মূলত সমাজে শান্তি-শৃঙ্খলা বজায় রাখতে মাদক কারবারিসহ অপরাধী চক্রের মুখোশ উন্মোচন করে দেয়ায় আমি ষড়যন্ত্রের শিকার হচ্ছি।
বর্তমান নিজের নিরাপত্তা নিয়েও আমি সংকিত। আমার বিরুদ্ধে যেহেতু একটি প্রভাবশালী কুচক্রিমহল লেগে আছে, তারা যেকোন ধরণের ক্ষতি করতে পারে। আমার জীবনের নিরাপত্তা বিধানে প্রশাসনের জরুরি হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

 
  
%d bloggers like this: