অনলাইন ডেস্ক: ছুটিতে গ্রামের বাড়িতে এসে ‘আত্মহত্যা’ করলেন বাংলাদেশ পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার লাবনী আক্তার।

নিহত লাবনী আক্তার মাগুরার শ্রীপুর উপজেলার কাদের পাড়া ইউনিয়নের পরালিদহ গ্রামের শফিকুল আযম এর মেয়ে। মৃত্যুর আগে তিনি খুলনা ডিএসবির অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন।

বুধবার (২০ জুলাই) গভীর রাতে তিনি গলায় ওড়না পেঁচিয়ে ফাঁস নিয়ে আত্মহত্যা করে। সকালে ডাকাডাকির পরেও দরজা না খুললে দরজা ভেঙে ভিতরে ঢুকে তার দেহ ঝুলন্ত অবস্থায় পাওয়া যায়। বলেছেন, লাবনী আক্তারের বাবা।

তিনি বলেন, গত ১৭ জুলাই এক সপ্তাহের ছুটিতে লাবনী গ্রামের বাড়িতে বেড়াতে আসে। গ্রামের বাড়িতে এসে সে শ্রীপুর উপজেলার শ্রীপুর ইউনিয়নের সারঙ্গ দিয়া গ্রামে তার নানা বাড়িতে ছিলো।

আত্মহত্যার বিষয়ে জানতে চাইলে শফিকুল আজম বলেন, সাংসারিক বিষয় নিয়ে স্বামীর সঙ্গে লাবনীর কলহ চলে আসছিলো। স্বামীর সাথে বনিবনা হচ্ছিল না বলেই আমার মেয়ে আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছে।

চৌকস পুলিশ অফিসার লাবনী আক্তার ৩০ তম বিসিএস এর মাধ্যমে সহকারী পুলিশ সুপার হিসেবে চাকরিতে যোগদান করেন।

শ্রীপুর থানায় ওসি প্রিটন সরকার বৃহস্পতিবার (২১ জুলাই) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বলেন, ময়নাতদন্তের জন্য মৃতদেহ মাগুরা মর্গে পাঠানোর ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

 
  
%d bloggers like this: