মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

অপরাধমূলক কর্মকান্ডের বিরুদ্ধে কক্সবাজার জেলা পুলিশের অবস্থান অত্যন্ত স্পষ্ট এবং কঠোর। তাই সামাজিক অবস্থান, পরিচিতি যাই হোক না কেন, অপরাধের সঙ্গে জড়িত কাউকেই, কোন অবস্থাতেই ছাড় দেওয়া হবে না।

মঙ্গলবার ১৯ জুলাই মহেশখালীর কালারমার ছড়া ইউনিয়ন পরিষদ ভবনে অনুষ্ঠিত বিট পুলিশিং সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে কক্সবাজারের পুলিশ সুপার (এডিশনাল ডিআইজি পদে পদোন্নতি প্রাপ্ত) মোঃ হাসানুজ্জামান পিপিএম অপরাধীদের উদ্দ্যেশে কঠোর এই হুঁশিয়ারি প্রদান করেন।

“আপনার পুলিশ আপনার পাশে”এই স্লোগানকে ধারণ করে মহেশখালী থানার উদ্যোগে মহেশখালীর ওসি প্রণব চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এই বিট পুলিশিং সভায় অন্যান্যের মধ্যে মহেশখালী সার্কেলের এএসপি আবু তাহের ফারুকী, কালারমার ছড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান তারেক বিন ওসমান শরীফ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। সভায় কালামারছড়া ইউনিয়ন ও আশপাশের এলাকার বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ অংশ নেন।

অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে কয়েকজন তাদের এলাকার আইনশৃঙ্খলা ও অপরাধ পরিস্থিতির বিষয়ে বক্তব্য তুলে ধরে বিভিন্ন সমস্যার সমাধান প্রত্যাশা করেন। প্রধান অতিথি এসপি মোঃ হাসানুজ্জামান পিপিএম তাদের কথা মনোযোগ সহকারে শোনেন এবং এসব ব্যাপারে তাদের সম্ভাব্য সকল প্রকার সহযোগিতার আশ্বাস দেন।

প্রধান অতিথি এসপি মোঃ হাসানুজ্জামান তাঁর বক্তব্যে আরো বলেন, পুলিশী সেবা মানুষের দোরগোড়ায় পৌঁছে দেয়ার জন্যই বিট পুলিশিং ব্যবস্থা চালু করা হয়েছে। এলাকায় অপরাধ মূলক কর্মকান্ড যেমন-মাদক, চুরি-ডাকাতি দস্যুতা, ইভটিজিং, নারী ও শিশু নির্যাতন, জুয়া খেলা সহ আরো অন্যান্য অপরাধ দমন করবে নিয়োজিত বিট পুলিশিং টিম। মানুষ কোন বিপদে পড়লে তাৎক্ষণিকভাবে তাদের পাশে দাঁড়াবে। যে সমস্ত মানুষ অপরাধের সম্মুখীন হয়ে থানা সদর বা জেলা সদরে যেতে পারে না বা যেতে ইচ্ছুক নন, তাদেরকে প্রয়োজনীয় আইনি সহযোগিতা প্রদান করা হবে বিট পুলিশিং এর মাধ্যমে। সেই সঙ্গে অপরাধের সাথে জড়িতদের তাৎক্ষণিকভাবে আইনের আওতায় নিয়ে আসা হবে।

এলাকায় শিশু-কিশোরদের অপরাধে জড়িয়ে পড়ার বিষয়ে এসপি মোঃ হাসানুজ্জামান বলেন, একটি শিশুকে সুষ্ঠুভাবে বেড়ে ওঠার জন্য পরিবার, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও সমবয়সী তথা খেলার সঙ্গীদের গুরুত্বপূর্ণ প্রভাব রয়েছে। এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট সকলকে আরো দায়িত্বশীল ও যত্নবান হতে তিনি সকলের প্রতি আহবান জানান।

 
  
%d bloggers like this: