সমুদ্রসৈকতে ট্যুরিস্ট পুলিশের অভিযান

বৈধ কার্ড, লাইসেন্স না থাকায় ফটোগ্রাফার আটক

প্রকাশ: জুলাই ১৯, ২০২২ ৪:৫৯ pm , আপডেট: জুলাই ১৯, ২০২২ ৫:১৮ pm

পড়া যাবে: [rt_reading_time] মিনিটে


কক্সবাজার সমুদ্রসৈকতের সুগন্ধা পয়েন্ট থেকে আটক ফটোগ্রাফার তহিদুল ইসলাম। সঙ্গে ট্যুরিস্ট পুলিশের সদস্যবৃন্দ।

ইমাম খাইর, সিবিএন:
কক্সবাজার সমুদ্রসৈকতের সুগন্ধা পয়েন্ট থেকে তহিদুল ইসলাম (৩০) নামের অনুমোদনহীন ফটোগ্রাফার আটক করেছে ট্যুরিস্ট পুলিশ।

মঙ্গলবার (১৯ জুলাই) সকাল ১১ টায় অভিযানে তাকে আটক করা হয়।

সে চকরিয়া উত্তর লক্ক্যারচর এলাকার আক্তার হোসেনের ছেলে। তাকে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

ট্যুরিস্ট পুলিশ কক্সবাজার রিজিয়নের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. রেজাউল করিম সংবাদের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, কিছু ফটোগ্রাফার জোরপূর্বক পর্যটকদের ছবি তোলে অতিরিক্ত টাকা দাবি করছে। তাতে হয়রানির পাশাপাশি কক্সবাজারের বদনাম ছড়াচ্ছে। পর্যটকদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে আমরা অভিযান চালাচ্ছি।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বলেন, নিয়মিত তৎপরতার অংশ হিসেবে সুগন্ধা পয়েন্টে অভিযানে নামে ট্যুরিস্ট পুলিশের একটি টিম। এ সময় ফটোগ্রাফার তহিদুল ইসলামকে আটক করে। জিজ্ঞাসাবাদে সে কোন বৈধ কার্ড, লাইসেন্স বা অনুমোদিত পোষাক দেখাতে পারেনি। তাকে বিচারের জন্য আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। তিনি জানান, আটককৃত ফটোগ্রাফারের বিরুদ্ধে ইতোপূর্বেও পর্যটক হয়রানির অভিযোগ ছিল।

অবৈধ ফটোগ্রাফারদের গ্রেফতার অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. রেজাউল করিম।

উল্লেখ্য, পর্যটকের ২৫০টি ছবি তোলে ৮০০ টাকা দাবির অভিযোগে গত রবিবার (১৭ জুলাই) সকালে সৈকতের সুগন্ধা পয়েন্ট থেকে মোঃ ইউনুস মিয়া (২৪) নামক ফটোগ্রাফার আটক হয়।

পুলিশ আইন এর ৩৪ (৬) ধারামতে সোমবার কক্সবাজার সদর মডেল থানায় তার বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দেন ট্যুরিস্ট পুলিশ কক্সবাজার রিজিয়নের উপপরিদর্শক (এসআই) মোঃ জসিম উদ্দিন। যার নন এফআইআর নং-১৫০/২২।

এই মামলায় সোমবার তাকে কক্সবাজার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে সোপর্দ করা হয়। শুনানিতে দোষ স্বীকার করায় তাকে চারদিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করেন বিচারক মোহাম্মদ এহসানুল ইসলাম।

সে কক্সবাজার পৌরসভার ৯ নং ওয়ার্ডের দক্ষিণ ঘোনারপাড়ার মৃত ইলিয়াছ মিয়ার ছেলে। তার ফটোগ্রাফ পোশাক নম্বর ৫৯২।

 
  
%d bloggers like this: