শাহেদ মিজান, সিবিএন:
শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ২০ লাখ টাকাসহ আটক কক্সবাজার জেলা প্রশাসনের ভূমি অধিগ্রহণ (এলএ) শাখার সার্ভেয়ার আতিকুর রহমানকে কারাগারে পাঠিয়েছে কক্সবাজার সদর মডেল থানা পুলিশ।
শনিবার বিকাণে তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।
কক্সবাজার সদর মডেল থানার ওসি (তদন্ত) সেলিম উদ্দীন জানিয়েছেন, আতিকের বিরুদ্ধে এখন পর্যন্ত মামলা রুজু হয়নি। তবে জেলা প্রশাসন একটি অভিযোগ দায়ের করেছে। সরকারি কর্মচারী বিধি মতে সেটি সাধারণ ডায়রি হিসেবে নথিভুক্ত করেছে পুলিশ। এটি দুর্নীতি দমন কমিশন দুদককে অনুলিপি পাঠানো হয়েছে। নিয়ম মতে, দুদকই সার্ভেয়ার আতিকুর রহমানের ঘটনায় মামলা দায়ের করবেন।

অন্যদিকে আতিকের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করছে জেলা প্রশাসন।

কক্সবাজারের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব)  আমিন আল পারভেজ জানিয়েছেন, ফৌজদারি মামলার পাশাপাশি সার্ভেয়ার আতিকুর রহমানের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। ইতিমধ্যে তা শুরু হয়েছে। তিনি কিভাবে, কোথা থেকে এতো টাকা পেলো এবং তা ঢাকায় কেন নিয়ে গেছে- সব বিষয়ে তদন্ত শুরু হয়েছে।

১ জুলাই সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে ব্যাগ ভর্তি ২৩ লাখ টাকা নিয়ে ঢাকা শাহজালাল (র:) আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে সার্ভেয়ার আতিকুর রহমান ধরা পড়ে। বিমানবন্দর থেকেই তাকে কক্সবাজারে ফেরত পাঠানো হয়। শুক্রবার রাতে তাকে কক্সবাজার সদর মডেল থানায় সোপর্দ করেছে কক্সবাজার জেলা প্রশাসন।

সার্ভেয়ার আতিকুর রহমানের বাড়ি সিরাজগঞ্জে। তিনি সহ ৩ জন সার্ভেয়ার মহেশখালীতে প্রায় ১৫টি প্রকল্পের ভূমি অধিগ্রহণের দায়িত্বে ছিলেন। ভূমি অধিগ্রহণ করতে গিয়ে জমির মালিকদের কাছ থেকে ঘুষ বাবদ আতিকুর রহমান ওই অর্থ হাতিয়ে নিয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

 
  
%d bloggers like this: