এস.এম.জুবাইদ,পেকুয়াঃ

কক্সবাজারের পেকুয়ার উজানটিয়ায় নৌ-পুলিশের টহলরত একটি টিমের সাথে পোনা আহরণকারীদের মধ্যে হাতাহাতি হয়েছে। এসময় নৌ-পুলিশের এক কর্মকর্তাসহ ২ পুলিশ সদস্য আহত হয়। আহত নৌ-পুলিশ সদস্যদেরকে উদ্ধার করে পেকুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

১ জুলাই (শুক্রবার) বেলা ১২ টার দিকে উপজেলার উজানটিয়া ইউনিয়নের পেরাসিঙ্গা পাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার খবর পেয়ে পেকুয়া থানার ওসি মোহাম্মদ ফরহাদ আলীর নেতৃত্বে সঙ্গী ফোর্স ঘটনাস্থলে গিয়ে তাদের কে উদ্ধার করে।

স্থানীয় ও প্রত্যক্ষদূর্শী সূত্রে জানা যায়,ঘটনার দিন বেলা ১২ টার দিকে এস আই অচিন্ত কুমার দের নেতৃত্বে মহেশখালী উপজেলার মাতারবাড়ী নৌ-পুলিশ ফাঁড়ির একটি টিম মাতামুহুরি নদীর উজানটিয়া নদীতে চলমান মৎস্য সপ্তাহের বিধিনিষেধ ৬৫ দিনের নিষেধাজ্ঞায় টহল দেয়। এ সময় পেরাসিঙ্গা পাড়ার ছৈয়দ আহমেদের পুত্র মাহামদ আলম, মাহামদ আলমের পুত্র আনসারসহ কয়েকজন রেনু পোনা আহরণকারী সাগর থেকে রেণু পোনা আহরন করে বেড়িবাঁধের উপর রেণু পোনা ছানি করে গননা করার সময় তাদেরকে আটক করতে চাই মাতারবাড়ী নৌ পুলিশ ফাঁড়ির এস আই অচিন্ত কুমার দের নেতৃত্বে সঙ্গী ফোর্স। এ সময় রেণু পোনা ধরার জাল ও বাশঁ জব্দ করে নিয়ে যেতে চাইলে পোনা আহরনকারীদের সাথে নৌ-পুলিশের মধ্যে হাতাহাতি হয়। হাতাহাতির এক পর্যায়ে এস আই অচিন্ত কুমার দে (৫৩), পুলিশ সদস্য সাজ্জাদ হোসেন(৩৭), রাসেল(২৯) আহত হয়।

ওই এলাকার রমিজ, সাজ্জাদ, মজিদ জানান এস আই অচিন্ত কুমার দে সহ সঙ্গী ফোর্স ওই পোনা আহরনকারীদের কাছ থেকে ১৫ হাজার টাকা দাবী করেন। কিন্তু পোনা আহরনকারীরা কোন মতে ৫ হাজার টাকা ম্যানেজ করে দিলেও নৌপুলিশের এস আই তা মেনে না নিয়ে তাদের সাথে কথা-কাটাকাটি করে এ পর্যায়ে এ ঘটনা ঘটে। কিছু আগেও নৌপুলিশ এখানকার কয়েকজন লোক কে আটক করে ৫৪ হাজার টাকা নিয়ে তাদের কে ছেড়ে দেয়।

এদিকে আহত মাতারবাড়ী নৌ-পুলিশ ফাঁড়ির এস আই অচিন্ত কুমার দে জানান, আমরা টহল দেওয়ার সময় এদিকে এসে দেখতে পায় কয়েকজন লোক সাগর থেকে রেণু পোনা আহরন করে বেড়িবাঁধে উঠে ছানি করে গননা করতেছে আমিসহ নৌপুলিশ সদস্যরা তাদের কে আটক করতে চাইলে তারাসহ ঘাট থেকে আরেকজন লোক গিয়ে আমাদের উপর হামলা করে। এসময় আমি ও নৌপুলিশের দুই সদস্য আহত হয়। পোনা আহরনকারীদের কাছ থেকে টাকা দাবী করার বিষয়টি জানতে চাইলে তিনি বলেন এগুলো মিথ্যা কথা আমরা কেন তাদের কাছ থেকে টাকা চাইবো।

এ বিষয়ে পেকুয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ ফরহাদ আলী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, কি কারণে এ ঘটনা হল ,তা তদন্ত করা হবে এবং এ ঘটনায় দোষীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 
  
%d bloggers like this: