মুহাম্মদ আবু বকর ছিদ্দিক,রামুঃ
মহানবী হযরত মুহাম্মদ(সা.) ও হযরত আয়েশা (রা.) কে নিয়ে ভারতের ক্ষমতাসীন দল বিজেপির জ্যেষ্ঠ দুই নেতার কটুক্তি ও চরম অবমাননাকর মন্তব্যের প্রতিবাদে প্রবল বৃষ্টি উপেক্ষা করে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে রামু জোয়ারিয়ানালা সম্মিলিত উলামা পরিষদ ও নবীপ্রেমিক তৌহিদী জনতা।
১৭ জুন শুক্রবার নবীপ্রেমিক তৌহিদী জনতা রামু জোয়ারিয়ানালা সম্মিলিত উলামা পরিষদের উদ্যোগে স্বতঃস্ফূর্তভাবে বিক্ষোভ মিছিলে অংশগ্রহন করেন তৌহিদী জনতা।

বিক্ষোভ মিছিল গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে জোয়ারিয়ানালা বাজার স্টেশনে মিছিলটি সমাপ্ত হয়। বিক্ষোভ মিছিল শেষে সংক্ষিপ্ত সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়৷ সমাবেশে বক্তারা বলেন প্রিয় নবি হযরত মুহাম্মদ দঃ ও মা আয়েশা (রাদিঃ) শানে কটুক্তি করা হয়।

ভারতের জনৈক বিজেপি নেতা-নেত্রী কর্তৃক প্রিয় রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামকে কটুক্তি করায় নবী প্রেমিক মুসলিম জনতা বিক্ষুব্ধ ও ভারাক্রান্ত।

ঘটনাটির প্রতিবাদ জানিয়ে বাংলাদেশ সরকারের প্রতি রাষ্ট্রীয়ভাবে নিন্দা জানানোর দাবি জানান।

বিক্ষোভ কর্মসূচি বাস্তবায়ন করেন জোয়ারিয়ানালা সম্মিলিত উলামা পরিষদে।
বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য করেন
জোয়ারিয়ানালা সম্মিলিত উলামা পরিষদের সভাপতি মাওলানা হেফাজতুর রহমান,

সম্মিলিত উলামা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক হাফেজ নুরুল আমিন, মৌলানা জাকের, মাওলানা হোসেন,মাওলানা মোহিববুল্লাহ,মোহাম্মদ নূরুল হুদা, হাফেজ নুরুল আমিন, ক্বারী আমান উল্লাহ, হাফেজ তৈয়ব উল্লাহ,মাওলানা আহাম্মদুর রহমান,ক্বারী শাহজাহান,মাওলানা এনামুল হক, হাফেজ মৌলানা
আজিজুল হক, হাফেজ মাওলানা হেফাজতুর রহমান, ক্বারী মাওলানা জিয়াউর রহমান, মাওলানা মোহাম্মদ নোমান, মাওলানা আখতার কামাল, মাওলানা শামসুল হক, হাফেজ মাওলানা আতাউল রহমান, মাওলানা রশিদ আহমদ, হাফেজ মৌলানা সরওয়ার কামাল,মুহাম্মদ আবু বকর ছিদ্দিক প্রমুখ।
বিশেষ মুনাজাতের মাধ্যমে বিক্ষোভ কর্মসূচি সমাপ্ত হয়।
উল্লেখ্য, সম্প্রতি ভারতীয় একটি টেলিভিশন বিতর্কে অংশ নিয়ে মহানবী হজরত মুহাম্মদ (সা.) ও তার স্ত্রী আয়েশা (রা.) সম্পর্কে অবমাননাকর বক্তব্য দেন নুপুর শর্মা। পরে একই বিষয়ে টুইটারে পোস্ট দেন নাভিন কুমার জিন্দাল। এ নিয়ে মুসলিম সম্প্রদায়ের মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। ইতোমধ্যে এ ঘটনায় বিশ্বের অনেক মুসলিম দেশ প্রতিবাদ জানিয়ে ভারতকে বয়কট করেন।

 
  
%d bloggers like this: