আনোয়ার হোছাইন, ঈদগাঁও, কক্সবাজার :

র‌্যাব-১১ এর অভিযানে ঢাকা নারায়নগঞ্জের মদনপুর হতে যাত্রীবেশী মাদক পাচারকারী শামসু অপর এক সহযোগীসহ গ্রেফতার হয়েছে। এসময় তাদের কাছ থেকে বিপুল পরিমাণ ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। ৯ মে( সোমবার) সকালে এ অভিযান পরিচালিত হয়।

সংশ্লিষ্ট সংস্থার ফেসবুক পেইজ নোট থেকে জানা যায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব-১১, সিপিএসসি, আদমজীনগর, নারায়ণগঞ্জের একটি আভিযানিক দল নারায়ণগঞ্জ জেলার বন্দর থানাধীন মদনপুর বাসষ্ট্যান্ড এলাকায় মাদক বিরোধী অভিযান পরিচালনা করে গণপরিবহনে যাত্রী সেজে বিশেষ কৌশলে কোমরের গামছায় পেঁচিয়ে ইয়াবা পাচারকালে ২ মাদক পাচারকারীকে হাতে-নাতে গ্রেফতার করে। গ্রেফতারকৃতরা হলো কক্সবাজারের ঈদগাঁও উপজেলার জালালাবাদ ইউনিয়নের পালাকাটা গ্রামের মৃত মকবুল আহমেদের ছেলে শামশুল আলম(৪৮) ও কক্সবাজার জেলার ভিন্ন উপজেলার মোঃ আতাউল (৩২)। এ সময় তাদের সাথে থাকা আনুমানিক ১৬ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা মূল্যের সাড়ে ৫ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়।
উল্লেখ্য, উক্ত শামসুল আলম ইতিপূর্বেও বিপুল পরিমাণ ইয়াবা পাচার কালে আটক হয়েছিল।পরে বছরাধিককাল জেল খেটে সম্প্রতি জামিনে মুক্ত হয়ে ফের ইয়াবা পাচার শুরু করে।
এলাকাবাসী জানান, অভাবের তাড়নায় স্থানীয় চিহ্নিত ইয়াবা চক্রের প্রলোভনে পড়ে সে এ মাদক পাচার কাজে নামে।সে সহ তার চক্রের কয়েক সদস্য একাধিকবার আটক হলেও প্রকৃত ইয়াবা গডফাদাররা এখনো দিব্যি ভাল মানুষের মুখোশ পরে এলাকায় বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের ছত্রছায়া য় দাফিয়ে বেড়াচ্ছে।
স্থানীয়দের দাবি ধৃতদের জিজ্ঞাসাবাদ করলেই বেরিয়ে আসবে আসল গডফাদারদের নানা তথ্য ও পরিচয় । এসব ইয়াবা গডফাদারদের আইনের আওতায় আনলেই এলাকার যুবসমাজ মাদকের ভয়াল থাবা থেকে রক্ষা পাবে বলে সচেতন মহলের দাবি।