অনলাইন ডেস্ক: কক্সবাজারের উখিয়ার ঐতিহ্যবাহী মরিচ্যা বাজারের সরকারী শেড থেকে ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে খালি স্ট্যাম্প নিয়ে চাঁদা তুলছিলো একটি চক্র। ব্যবসায়ীদের অভিযোগের ভিত্তিতে শনিবার মরিচ্যাবাজারে অভিযান পরিচালনা করে, এই সময় চিহ্নীত চাঁদাবাজকে বাজার থেকে উচ্ছেদ করেন হলদিয়াপালং ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ইমরুল কায়েস চৌধুরী।

মরিচ্যা বাজারের ব্যবসায়ী ছৈয়দ উল্লাহ প্রকাশ জানান, তিনি দীর্ঘ ১৫/১৬ বছর ধরে তিনি মরিচ্যা বাজারে ব্যবসা করে আসছেন। মরিচ্যা বাজারে সরকারী শেড নির্মাণের পর থেকে সাইফুল নামের এক সন্ত্রাসী তাকে ব্যবসা করতে দিচ্ছিলোনা। তাকে জোরকরে খালি স্ট্যাস্প নেয় পশ্চিম মরিচ্যার শফিউল্লাহর ছেলে সাইফুল। সাইফুল গত ৩ বছর ধরে তাকে জিম্মি করে সরকারী শেড থেকে ৩ হাজার টাকা করে চাঁদা নিয়ে আসছে। বিয়ষটি তিনি লিখিত ভাবে উখিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানকে জানান।
কাচা বাজারের ব্যবসায়ী কলিম উল্লাহ জানান মরিচ্যা বাজারের একটি সিন্ডিকেট আছে। তারা বাজারের ব্যবসায়ীদের জিম্মি করে মাসোহারা আদায় করে আসছিলো। শনিবার চেয়ারম্যান ইমরুল চৌধুরী বাজারে এসে ব্যবসায়ীদের মাসোহারা না দেয়ার ঘোষণা ও চাঁদাবাজ সিন্ডিকেটেকে বাজার থেকে বিতাড়িত করেন।
এই বিষয়ে জানতে চাইলে উখিয়ার হলদিয়াপালং ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ইমরুল কায়েস চৌধুরী জানান, মরিচ্যা বাজারের কয়েকজন ব্যবসায়ী বাজারের সরকারী শেড থেকে ব্যবসায়ীদের জিম্মি করে মাসিক চাঁদা আদায় করছিলো। কয়েকজন ব্যবসায়ীর কাছ থেকে লিখিত অভিযোগ পাওয়ার পর থেকে সাইফুলকে বার বার ঐ সকল ব্যবসায়ীদের স্ট্যাম্প ও টাকা ফেরত দিতে বলা হয়। কিন্তু সে ব্যবসায়ীদের স্ট্যাম্প ও টাকা ফেরত দেয়নি। নিরিহ ব্যবসায়ীর স্ট্যাম্প ও টাকা আদায় করার জন্য শনিবার তার কিছু মালামাল পরিষদের হেফাজতে আনা হয়েছে। মরিচ্যা বাজারে ব্যবসায়ীদের কাছ কোন ধরনের চাঁদাবাজি করতে দেয়া হবেনা বলে হুশিয়ারি উচ্চারণ করেন চেয়ারম্যান ইমরুল কায়েস চৌধুরী।

 
  
%d bloggers like this: