পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের অনুরোধে জাতীয় পরিষদ ভেঙে দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট আরিফ আলভি। অন্যদিকে ইমরান খানকে ক্ষমতাচ্যুত করতে বিরোধীদের আনা অনাস্থা প্রস্তাব ‘অসাংবিধানিক’ আখ্যা দিয়ে জাতীয় পরিষদের ডেপুটি স্পিকার কাসিম খান সুরি নাকচ করে দিয়েছেন।

তবে বিরোধীরা ডেপুটি স্পিকারের অনাস্থা প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করার আদেশকে অবৈধ ঘোষণা করে শাহবাজ শরিফকে নতুন প্রধানমন্ত্রী হিসেবে একতরফা ঘোষণা দিয়েছে। ‘নতুন প্রধানমন্ত্রী’ হিসেবে আইনসভায় এরই মধ্যে ভাষণও দিয়েছেন শাহবাজ খান। খবর হিন্দুস্তান টাইমসের।

এদিকে, ১৯৭ জন সদস্য পিএমএল-এনের সংসদ সদস্য আয়াজ সাদিককে নতুন স্পিকার হিসেবে নির্বাচিত করেছেন বলে দাবি করে পাকিস্তান পিপলস পার্টির নেতা শেরি রেহমান একটি ভিডিও টুইট করেছেন।

সাদিক স্পিকার নির্বাচিত হওয়ার পর তিনি ইমরান খানের সরকারের বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব চালু করেন বলে জানা গেছে। পার্লামেন্টে ইমরান খানের জোটের সদস্যদের অনুপস্থিতিতে অনাস্থা প্রস্তাবের পক্ষে রায় দিয়েছেন বিরোধীদলীয় সংসদ সদস্যরা।

এদিকে, ২৫ এপ্রিল পর্যন্ত মুলতবি হওয়ার পর পার্লামেন্টের অধিবেশন পুনরায় আহ্বান করার ক্ষেত্রে বিরোধীরা একটি ব্যতিক্রমী পদক্ষেপ নিয়েছেন। নিয়মানুযায়ী স্থগিত হওয়া অধিবেশন কেবল প্রেসিডেন্ট বা স্পিকার ডাকতে পারেন।

অন্যদিকে, জাতীয় পরিষদ (পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ) ভেঙে দিয়ে একটি দাপ্তরিক নোটিশ জারি করা হয়েছে। ৯০ দিনের মধ্যে নতুন নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।

 
  
%d bloggers like this: