নিজস্ব প্রতিনিধি:

ভরণ-পোষণ চাওয়ায় বৃদ্ধ বাবাকে মারধর করার অভিযোগে বিত্তবান দুই ছেলের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন হতভাগা বৃদ্ধ বাবা বদিউল আলম।

মঙ্গলবার (২৯ মার্চ) চকরিয়া সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে এ মামলাটি দায়ের করেন তিনি।

জানা যায়, পেকুয়ার বারবাকিয়া ইউনিয়নের ফাসিয়াখালী সবজিবনপাড়া গ্রামের বাসিন্দা ও মরহুম কালামিয়ার পুত্র ৮৩ বছর বয়সী বদিউল আলম জানান, ফরিদুল ইসলাম (৫৫), মুরাদুল ইসলাম হেলালী (৫০), সওকতউল ইসলাম (৩৫) ও খোরশেদ নামে তার চার সন্তান রয়েছে। সবাই সচ্ছল ও বিত্তবান। দু’ছেলে ফরিদ ও সওকতউল ইসলাম তাকে দেখভাল করে, কিন্তু বাকি দুজন দেখভাল করে না। বরং নানা অজুহাতে প্রতিনিয়ত নির্যাতন করে।

সর্বশেষ গত ১৫ ফের্রুয়ারি সকালে তুচ্ছ ঘটনায় ওই দু’ছেলে অকথ্য গালিগালাজ করে। ফলে অসহায় হয়ে বৃদ্ধ বাবা বদিউল আলম বাড়ি থেকে বের হতে চান। কিন্তু ওই দু’পাষণ্ড ছেলে মুরাদুল ইসলাম হেলালী ও মো: খোরশেদ ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে অমানবিক প্রহার করে। প্রতিবেশীরা এগিয়ে এসে তাদের কবল থেকে তাকে উদ্ধার করে।

অসহায় বাবা বদিউল আলম বলেন, ‘আমার স্ত্রী মারা গেছেন, ছেলেদের মায়ায় দ্বিতীয় বিয়ে করিনি। এরা তাদের জন্মদাতা মাকেও মারধর করতো। এখন আমাকে মারধর করে। তারা ঘটনা করলে এলাকার লোকজন বিচার করবে বলে কালক্ষেপণ করে। তাই নিরুপায় হয়ে মামলা করেছি।

বদিউল আলমের সেজ ছেলে সওকতউল ইসলাম জানান, বৃদ্ধ বাবাকে আমার দু’ভাই দীর্ঘদিন ধরে নির্যাতন করে আসছে, প্রতিবাদ করলে আমাকেও নির্যাতন করে তারা।

মামলার আইনজীবী ও চকরিয়া সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের সহকারী পাবলিক প্রসিকিউটর অ্যাডভোকেট শহীদউল্লাহ চৌধুরী জানান, সন্তানরা নির্যাতন করায় বৃদ্ধ বাবা বদিউল আলম তাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন। আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে আদালতের পরিদর্শককে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন।

 
  
%d bloggers like this: