সংবাদ বিজ্ঞপ্তি :

৩১ মার্চ কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতে অনুষ্ঠেয় বাংলাদেশের উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণ উদযাপন উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রীর অনুষ্ঠান সফল করার লক্ষে ব্যাপক প্রচার প্রচারণা চালাচ্ছেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মেয়র মুজিবুর রহমান। “উন্নয়নের নতুন জোয়ার, বদলে যাওয়া কক্সবাজার” প্রতিপাদ্যে প্রথমবারেরমতো ব্যতিক্রমী এই আয়োজন করতে যাচ্ছে সরকার। যেখানে কক্সবাজার প্রান্তে কয়েকজন গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী এবং ডজনখানেক সিনিয়র সচিব উপস্থিত থাকার কথা রয়েছে।

অল্প সময়ের প্রস্তুতিতে নগর পিতা হিসেবে তিনি হাজার হাজার মানুষের উপস্থিতি নিশ্চিত করতে দিনরাত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন মুজিবুর রহমান। যেহেতু অনুষ্ঠানটিতে ঢাকা থেকে ভিডিও কনফারেন্সে সরকার প্রধান শেখ হাসিনা যুক্ত থাকার কথা রয়েছে সে কারণে লাখো মানুষের সমাবেশ ঘটানোর লক্ষ্যে কাজ করছেন সবাই।

ইতোমধ্যে জেলা প্রশাসন, জেলা আওয়ামী লীগ, পৌর আওয়ামী লীগ, উখিয়া ও টেকনাফ উপজেলা আওয়ামী লীগ, হোটেল-মোটেল গেস্ট হাউস মালিক সমিতি, রেস্তোরাঁ মালিক সমিতির সাথে বৈঠক করেছেন। রাত ১০টায় কলাতলীতে পর্যটন ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন ফেডারেশন অব ট্যুরিজম সার্ভিসেস এসোসিয়েশনের উদ্যোগে প্রস্তুতি সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন মেয়র মুজিবুর রহমান। সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক আবুল কাশেম সিকদারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় হোটেল-মোটেল গেস্ট হাউস মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক সেলিম নেওয়াজ, রেস্তোরাঁ মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক রাশেদুল ইসলাম ডালিম, সহ-সভাপতি শরাফত উল্লাহ বাবুল, মেরিন ড্রাইভ হোটেল মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মুকিম খান, টুয়াকের উপদেষ্টা মুফিজুর রহমান মুফিজ, টুয়াক সভাপতি আনোয়ার কামাল, হোটেল মোটেল অফিসাস এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক করিম উল্লাহ কলিমসহ সংশ্লিষ্টরা বক্তব্য রাখেন।

একইভাবে আরও বিভিন্ন শ্রেনী পেশার মানুষের সঙ্গে আলাদা মতবিনিময় করেছেন মেয়র। এছাড়াও পৌরসভার ১২ ওয়ার্ডের কাউন্সিলরদের সাথে বিশেষ আলোচনা করেছেন তিনি।
এসময় মেয়র মুজিবুর রহমান বলেন, “বাংলাদেশের স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণ উদযাপনের আয়োজনে যেহেতু মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত থাকবেন সেহেতু এই অনুষ্ঠানের গুরুত্ব অনেক বেশি। তাই পুরো আয়োজনকে সফল করতে হাজার হাজার মানুষের উপস্থিতি নিশ্চিত করতে হবে।” সে জন্য জনসমাগম কিভাবে বাড়ানো যায় সেটির উপর গুরুত্বারোপ করেন নগর পিতা।
এদিকে সন্ধ্যায় জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে প্রস্তুতিমূলক সভায় সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রশাসক মোঃ মামুনুর রশীদ, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক এডভোকেট সিরাজুল মোস্তফা, পুলিশ সুপার হাসানুজ্জামান, জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এডভোকেট ফরিদুল ইসলাম চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক মেয়র মুজিবুর রহমান, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি নজিবুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক উজ্জ্বল করসহ শীর্ষ নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন।
এদিকে প্রধানমন্ত্রীর ব্যতিক্রমী এই অনুষ্ঠান সফল করার লক্ষে মেয়র মুজিব যেভাবে কঠোর পরিশ্রম করে যাচ্ছেন সেটিকে সমসাময়িক প্রেক্ষাপটে বেশ ভাল দিক হিসেবে উপলব্ধি করছেন স্থানীয় রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।

 
  
%d bloggers like this: