সিবিএন:

কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতের বিস্তীর্ণ স্থানজুড়ে মরা মাছ ভেসে আসার ঘটনা নিয়ে বেশ আলোচনা চলছে। শনিবার বিকালে এসব মাছ ভেসে আসার পর থেকে এসব মাছ নিয়ে উৎসুক মানুষের আগ্রহের শেষ নেই। বলা হচ্ছিল সমুদ্রে খারাপ প্রভাব বা সাগরে সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড় আসানি’র প্রভাব মাছগুলো মরে কূলে উঠে এসেছে। এই নিয়ে এক প্রকার তোলপাড় সৃষ্টি হয়।
তবে কক্সবাজারের মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউট জানিয়েছে, কোন কিছুর প্রভাব নয়; একটি বড় বোট থেকে মরা মাছগুলো ফেলে দেয়া হয়েছে।

সত্যতা নিশ্চিত করে কক্সবাজার মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউটের বিজ্ঞানী শফিকুর রহমান জানিয়েছেন, মাছগুলো মহেশখালীর একটি মাছধরার বোট থেকে ফেলে দেয়া হয়েছে।

তিনি জানিয়েছেন, মহেশখালী ওই বোটটিতে বিপুল পরিমাণ স্থানীয় ভাষায় ‘চামিলা’ ওইসব মাছ ধরা পড়ে। মাছগুলো আনলোড করার জন্য তারা কলাতলী পয়েন্টে আসে। দুটি নৌকায় আনলোড করার পর অবশিষ্ট মাছগুলো তারা সৈকতের লাগোয়া পানিতে ফেলে দেয়। পরে মরা মাছগুলো ঢেউয়ের তোড়ে ভেসে কূলে উঠে আসে।

বিজ্ঞানী শফিকুর রহমান বলেন, এত বিপুল পরিমাণ মরা মাছ ভেসে আসা নিয়ে আমরা বেশ দুশ্চিনতায় পড়ে যাই। এই নিয়ে অনুসন্ধান শুরু করি। অনুসন্ধানে জানতে পারি মরা মাছগুলো বোট থেকে ফেলে দেয়া হয়েছে।
একই কথা জানিয়েছেন, জেলা মৎস্য কর্মকর্তা খালেকুজ্জামানও।

তারা দুজনই বলেছেন, বিহিন্দি জালের মতো জালে এসব মাছ ধরা পড়ে। কিন্তু বাজারে দাম কম হওয়ায় খরচ না পোষানোর কারণেই মাছগুলো ফেলে দেয়া হয়েছে।